×

খবর

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বড় জমায়েত করবে বিএনপি

Icon

প্রকাশ: ২৬ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে শিগগিরই মাঠে নামছে বিএনপি। আগামী কয়েকদিনের মধ্যে রাজধানীতে প্রতিবাদ সমাবেশের মাধ্যমে বড় জমায়েত করবে দলটি। এরপর বিভাগীয় ও জেলা শহরে বিক্ষোভ সমাবেশ হবে। গত সোমবার রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে বৈঠক সূত্রে জানা গেছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপির এক সিনিয়র নেতা জানান, বৈঠকের একপর্যায়ে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নিয়ে আলোচনার সূত্রপাত করেন একজন নেতা। তার সঙ্গে অন্যরাও আলোচনায় যুক্ত হন। বিএনপি নেতারা মনে করেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসার জন্য বিদেশে নেয়ার অনুমতি চেয়ে লাভ হবে না। এখন তাকে মুক্ত করার আন্দোলনে নামতে হবে।

বৈঠকে আগামী দু’একদিনের মধ্যে ঢাকায় বিক্ষোভ সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত হয়। এতে বড় ধরনের জমায়েত করবে দলটি। কর্মসূচি ঘোষণা করতে আজ বুধবার সকাল ১১টায় নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের যৌথ সভা ডাকা হয়েছে।

বৈঠকে একজন নেতা বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি এড়িয়ে ২০১৮ সালে সংসদ নির্বাচনে গিয়েছি। তারপরেও এই ইস্যুতে জোরদার কোনো আন্দোলন হয়নি। অনেক দিন পরে হলেও আন্দোলন হচ্ছে, এটাই বড় কথা।

স্থায়ী কমিটির বৈঠক সূত্র জানায়, ঢাকার বিক্ষোভ সমাবেশে বড় জমায়েতের বিষয়টিকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে। ঢাকা মহানগর বিএনপি অন্য সংগঠনগুলোকে বিপুলসংখ্যক নেতাকর্মীর উপস্থিতি ঘটাতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল সংবাদ সম্মেলনে বলেন, দলের স্থায়ী কমিটির সভায় অনতিবিলম্বে খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি দাবিতে আন্দোলন গড়ে তোলার সিদ্ধান্ত হয়। সেই লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় কর্মসূচি প্রণয়নের সিদ্ধান্ত হয়।

বৈঠক সূত্র জানায়, স্থায়ী কমিটির একজন সদস্য জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক একটি উপকমিটি গঠনের পরামর্শ দেন। এই কমিটির নেতারা জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়ে বিভিন্ন পরামর্শ দেবে বিএনপিকে। সেই অনুযায়ী বিএনপি তা জনগণের সামনে তুলে ধরবে। এই কমিটি গঠনের বিষয়ে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি। পরবর্তী বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হতে পারে।

খালেদা জিয়া উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত: হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানোর পর খালেদা জিয়ার অবস্থা ‘স্থিতিশীল’ বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে দলীয় চেয়ারপারসনের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থা জানাতে গিয়ে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির মহাসচিব দাবি করেন, প্রধানমন্ত্রীর কারণে খালেদা জিয়া উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন।

তিনি বলেন, অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, খালেদা জিয়াকে বাইরে পাঠানোর জন্য সব ব্যবস্থা হয়ে গিয়েছিল প্রায়, তার পরিবার আবেদন করে। ফাইনালি যখন আবেদন প্রধানমন্ত্রীর কাছে গেছে, প্রধানমন্ত্রী এটা রিজেক্ট করেছেন। মির্জা ফখরুল যোগ করেন, শুধু এটা নয়, আমরা বিভিন্ন মিশনের কাছেও চিঠি দিয়েছিলাম। তারা বারবার চেষ্টা করেছেন, ফেরত এসে তারা বলেছেন যে, সরি ভাই, উনি শুনলেন না।

এর উদ্দেশ্যটা কী, সে প্রশ্ন তুলে ফখরুল বলেন, উদ্দেশ্যটা হচ্ছে, রাজনীতি থেকে তাকে দূরে সরিয়ে রাখা। ২০১৮ সালের নির্বাচনের ঠিক আগে আগে তাকে মিথ্যা মামলায় সাজা দেয়া হলো এবং তাকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হলো। তারপর থেকে তিনি যেন কোনোমতেই মুক্তি না পান, তা চলছে এখন পর্যন্ত।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App