×

খবর

জম্মু-কাশ্মিরে সেনা ঘাঁটিতে হামলা

পাঁচ সেনাসদস্য ও এক পুলিশ কর্মকর্তা আহত

Icon

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : জম্মু ও কাশ্মিরের দোদায় একটি সেনা ঘাঁটিতে হামলা চালানোর পরে বিদ্রোহী এবং নিরাপত্তা বাহিনীর মধ্যে একটি গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। বন্দুক যুদ্ধে পাঁচ সেনা ও একজন বিশেষ পুলিশ কর্মকর্তা (এসপিও) আহত হয়েছেন। পুলিশ এ তথ্য জানিয়েছে।

কাঠুয়ায় বিদ্রোহীদের গুলি চালানো, একজন বেসামরিক ব্যক্তিকে আহত করা এবং রিয়াসিতে তীর্থযাত্রীদের বহনকারী একটি বাসে নয়জন যাত্রী নিহত হওয়ার পর জম্মুতে তিন দিনের মধ্যে এটি তৃতীয় ঘটনা। খবর এনডিটিভির। অভিযানের তত্ত্বাবধানে থাকা জম্মু জোনের অতিরিক্ত মহাপরিচালক আনন্দ জৈন বলেছেন, গত মঙ্গলবার রাতে কাঠুয়ায় একটি এনকাউন্টারে একজন বিদ্রোহীকে হত্যা করা হয়েছে। দোদার ঘটনার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা গভীর রাতে ছত্তরগালা এলাকায় একটি সেনা ঘাঁটিতে পুলিশ ও রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের একটি যৌথ দলের ওপর গুলি চালায়। নিরাপত্তা বাহিনী এবং সন্ত্রাসীদের মধ্যে গোলাগুলি চলছে’।

পুলিশ জানিয়েছে, গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কাঠুয়ায় হামলায় দুই বিদ্রোহী জড়িত ছিল এবং তাদের মধ্যে একজন নিহত হয়েছে। কাঠুয়ার হীরানগর এলাকায় দ্বিতীয় বিদ্রোহীর সন্ধানে নিরাপত্তা বাহিনী এখন ড্রোন ব্যবহার করছে।

পুলিশ বলছে, বিদ্রোহীরা গ্রামবাসীদের বেশ কয়েকটি বাড়ি থেকে পানি চেয়েছিল এবং কিছু গ্রামবাসী সতর্কতা জারি করলে তারা গুলি চালায়। আনন্দ জৈন বলেন, ‘গুলিবর্ষণে একজন বেসামরিক ব্যক্তি আহত হয়েছেন’। কাঠুয়ায় হামলায় তিনজন মারা যাওয়ার খবর অস্বীকার করেছেন তিনি। বলেছেন, ‘অনেক লোক আহত হয়েছে এবং তিনজন মারা গেছে বলে গুজব রয়েছে। তবে শুধু একজন বেসামরিক ব্যক্তি আহত হয়েছে, এর বাইরে জিম্মি হওয়া এবং মৃত্যুর বিষয়ে সমস্ত তথ্য গুজব’।

তিনি কাঠুয়া হামলাকে একটি ‘নতুন অনুপ্রবেশ’ বলে অভিহিত করেন এবং নাম উচ্চারণ না করে পাকিস্তানের দিকে ইঙ্গিত করেন। ‘এটি আমাদের শত্রæ প্রতিবেশী যারা সব সময় আমাদের দেশের শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করার চেষ্টা করে। হীরানগরে হামলা নতুন অনুপ্রবেশ বলে মনে হচ্ছে’- বলেন তিনি।

দুদিন আগে শিব খোরি গুহা মন্দিরে যাওয়ার পথে রিয়াসিতে একটি বাস হামলার শিকার হয়। বাসের চালক যাত্রীদের নামাতে অস্বীকার করার পর সন্ত্রাসীরা গুলি চালায়। কিন্তু বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে যায়। বাস কোম্পানির ম্যানেজার জানিয়েছেন। এ ঘটনায় নয়জন নিহত ও ৩৩ জন আহত হয়েছেন। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, লস্কর-ই-তৈয়বার কমান্ডার আবু হামজার নির্দেশে এই হামলা চালানো হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App