×

খবর

দুর্নীতির অভিযোগের জবাবে মাহাথির

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে প্রাপ্ত বেতনই যথেষ্ট ছিল

Icon

প্রকাশ: ১৩ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : যে কোনো ধরনের দুর্নীতির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। তিনি বলেছেন, ‘আমার বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ থাকলে তা আদালতে পেশ করুন। দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে বেতন হিসেবে যে অর্থ আমি পেয়েছি, সেই অর্থই আমার জন্য যথেষ্ঠ ছিল। তবে আমার সে অর্থের বেশির ভাগ শেষ হয়ে গেছে।’ দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম মাহাথির মোহাম্মদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তুলেছেন। এ জন্য একটি মানহানি মামলা করতে যাচ্ছেন মাহাথির। মামলায় ৩ কোটি ২০ লাখ মার্কিন ডলার (১৫ কোটি রিঙ্গিত) ক্ষতিপূরণ চাইবেন তিনি। কাতারভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল আল-জাজিরার সঙ্গে বিশেষ সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী আনোয়ার ইব্রাহিম মাহাথিরের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বলেছেন, ক্ষমতায় থাকাকালে তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে নিজের ও পরিবারকে সম্পদশালী করেছেন।

গম্প্রতি মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন কমিশন (এমএসিসি) মাহাথিরের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে। মাহাথির বলেন, আমি ওই অর্থ দেখিনি। কোথায় আছে, তাও জানি না। আমি জানতে আগ্রহী। যদি আমি অর্থ নিয়ে থাকি, আদালতকে বলুন, কীভাবে আপনি (আনোয়ার ইব্রাহিম) তা জানতে পেরেছেন। তিনি আরো বলেন, শুরুতে তিনি (আনোয়ার) তার কাছে ফাইল ও বাক্সভর্তি তথ্য থাকার কথা বলেছিলেন। যেগুলোয় আমার অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ আছে। খুব ভালো, যদি থেকে থাকে তবে দেখান; যদিও এখন পর্যন্ত তিনি কিছু দেখাননি। এখন তিনি আমাকে ছেড়ে আমার সন্তানদের পেছনে লেগেছেন। ১৯৮১ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত টানা ২৩ বছর মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী ছিলেন মাহাথির মোহাম্মদ।

তারপর তিনি স্বেচ্ছায় ক্ষমতা ছেড়ে অবসরে যান। অবসর থেকে ফিরে নিজ দলের বিরুদ্ধে গিয়ে বিরোধী দলের হয়ে ২০১৮ সালে তিনি আবার নির্বাচন করে প্রধানমন্ত্রী হন এবং ২০২০ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App