×

খবর

শিশু ও ৬৫ বছরের বেশি বয়সিদের হার বেশি

দেশে বছরে ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত ২০ হাজার মানুষ

Icon

প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : উন্নত বিশ্বে প্রতি লাখে ১৫ জন মানুষ ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত হয়। তবে তৃতীয় বিশ্বের এ সংখ্যা প্রতি লাখে ৪ জন। আর দেশে বছরে প্রায় ২০ হাজার মানুষ ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত হয়। প্রতি বছর ৩ হাজার ব্রেন টিউমার সার্জারি হচ্ছে। নিউরোসার্জিক্যাল সেন্টারগুলোকে আধুনিক যন্ত্রপাতি সুসজ্জিত করলে এবং দেশের সব জেলা হাসপাতালে নিউরো সার্জারি বিভাগ চালু করলে দেশের প্রান্তিক জনগোষ্ঠী ব্রেন টিউমার, হেড ইনজুরি প্রভৃতি বিষয়ে চিকিৎসার সুযোগ পাবে। বিভিন্ন ধরনের রেডিয়েশনসহ বিভিন্ন কারণে ব্রেন টিউমার হতে পারে। তবে সময়মতো ব্রেন টিউমার অপারেশন করলে ব্রেন টিউমার ভালো হয় এবং মৃত্যুঝুঁকি ও পঙ্গুত্ব কমে যায়।

ওয়ার্ল্ড ব্রেন টিউমার ডে উপলক্ষে আয়োজিত এক বৈজ্ঞানিক সেমিনারে এসব তথ্য জানানো হয়। ‘ব্রেন হেলথ অ্যান্ড প্রিভেশন’ প্রতিপাদ্য নিয়ে গত রবিবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) দিবসটি পালিত হয়েছে। শহীদ ডা. মিল্টন হলে বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউরোসার্জনস আয়োজিত এই বৈজ্ঞানিক সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন বিএসএমএমইউ এর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. দ্বীন মোহা. নূরুল হক। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউরোসার্জনসের সভাপতি বিএসএমএমইউ এর নিউরোসার্জারি বিভাগের অধ্যাপক এবং সার্জারি অনুষদের ডিন অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ সোসাইটি অব নিউরোসার্জনসের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. মো. শফিকুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরো সার্জারি বিভাগের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. আফজাল হোসেন। সেমিনারে ব্রেন টিউমারের ওপর আলাদা ৩টি বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ উপস্থান করেন সহযোগী অধ্যাপক ডা. আতিকুর রহমান, সহকারী অধ্যাপক ডা. কে এম আতিকুল ইসলাম ও সহকারী অধ্যাপক ডা. সুমন রানা।

সেমিনারে জানানো হয়, ব্রেন টিউমার মানেই ক্যান্সার নয়। ৭৫ শতাংশ ব্রেন টিউমারই ক্যান্সার নয়। দেশে ক্যান্সারের আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে এই ক্যান্সারের অবস্থান ১৯তম। সংখ্যায় কম হলেও এই ক্যান্সারে আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুঝুঁকি অনেক বেশি। শিশু ও ৬৫ বছরের বেশি বয়সিদের মধ্যে ব্রেন টিউমারে আক্রান্তের সংখ্যা বেশি। এছাড়া ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত অথচ ক্যান্সার নয় এক্ষেত্রে নারীদের সংখ্যা বেশি। অপরদিকে ব্রেন টিউমার হয়ে ক্যানসারে আক্রান্ত যারা, তাদের মধ্যে পুরুষের সংখ্যা বেশি। দিন দিন এই ক্যান্সার ও টিউমারের আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এর কারণ হিসেবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খাবারে বিভিন্ন ক্ষতিকর রাসায়নিকের ব্যবহার, শিল্প কারখানার কার্বণ নিঃস্বরণ, বংশগত, ধূমপান, লিঙ্গ, অ্যালকোহল, রেডিয়েশন এক্সপোজার উল্লেখযোগ্য।

বক্তারা বলেন, তরুণ প্রজন্মের নিউরোসার্জনরাই সারা বিশ্বে বাংলাদেশের নেতৃত্ব দেবে। একই সঙ্গে তরুণ নিউরোসার্জনরা অনেক দক্ষ ও আধুনিক প্রযুক্তিনির্ভর চিকিৎসা দিতে পারদর্শী। আধুনিক ও প্রযুক্তিনির্ভর ব্রেন টিউমার অপারেশনে বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে চলছে। অধ্যাপক ডা. দ্বীন মোহা. নূরুল হক বলেন, দেশে নিউরো সার্জারির অনেক উন্নতি হয়েছে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় নিউরো সার্জারির উন্নয়নে কাজ করছে। সরকারি হাসপাতালে আধুনিক যন্ত্রপাতি দিলে দেশের বিশ্বমানের নিউরো সার্জারি সেবা দেয়া যাবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অধ্যাপক ডা. মোহাম্মদ হোসেন বলেন, দেশের ২০টি বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে নিউরো সার্জারি চালু আছে। নিউরো সার্জারিতে দক্ষ জনশক্তি তৈরিতে বিএসএমএমইউ, ঢাকা মেডিকেল কলেজ, নিনস, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ, কম্বাইন্ড মেডিকেল হসপিটাল, রংপুর মেডিকেল কলেজে এমএস নিউরো সার্জারি কোর্স চালু করা হয়েছে। ২০৩২ সালের মধ্যে দেশের সব জেলা হাসপাতালে নিউরো সার্জারি বিভাগে সেবা চালু হবে হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App