×

খবর

স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী

সমবায়কে অনন্য উচ্চতায় নিতে চাই

Icon

প্রকাশ: ০২ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক, রাজশাহী : স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী আব্দুল ওয়াদুদ দারা বলেছেন, পৃথিবীতে আপনি-আমি কেউ থাকব না। তবে এই সমবায় সেক্টরটি নিয়ে যদি কিছু করে যেতে পারি, সেটাই হবে স্বার্থকতা। আপনারা সবাই মিলে মন্ত্রণালয়কে সহযোগিতা করেন। এর অধীনে প্রকল্পের জায়গা সব দখলে নিতে হবে। সমবায় নিয়ে কোর্টে দৌড়াদৌড়ি কীভাবে বন্ধ করা যায়, এ ব্যাপারে আমরা পদক্ষেপ নেব। আমরা সমবায় আইন সংস্কার করব। আমরা সমবায়কে একটি অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করছি।

গতকাল শনিবার দুপুরে রাজশাহী বিভাগীয় সমবায় কার্যালয়ে ‘বঙ্গবন্ধুর ভাবনায় সমবায়ভিত্তিক কৃষি : সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জ’ শীষর্ক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বিভাগীয় সমবায় কার্যালয়ের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রতিমন্ত্রী বলেন, আগে আমরা দেশের প্রতিটি ওয়ার্ডে সমবায় চালু করতে চাই। এরপর আমরা প্রত্যেক গ্রামে সমবায়ভিত্তিক কার্যক্রম চালু করব। আপনি-আমি আসেন চেষ্টা করি। আমরা এক বছরের মধ্যে পরিবর্তন করে ফেলব। তিনি আরো বলেন, শুধু সমবায় আন্দোলনই না। সবক্ষেত্রেই আমরা যেন একটা সীমার মধ্যে থেকে আইনের কাঠামোর মধ্যে থেকে দেশটাকে যেন কিছু দিতে পারি, সেই চেষ্টা করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর পাঠশালা পরিকল্পনা ছাড়া দেশের মানুষের আর্থ-সামাজিক, রাজনৈতিক এবং প্রাতিষ্ঠানিক মুক্তি আসতে পারে না। তার বাইরে কোনো তত্ত্ব কিংবা থিউরি নেই। বঙ্গবন্ধু এদেশের মাটি এবং মানুষকে নিয়েই জলবায়ু ও আবহাওয়ার প্রেক্ষাপট নিয়েই প্রথম পাঠশালা রচনা করেছিলেন; যার মধ্যে ছিল বাংলাদেশসহ উপমহাদেশের প্রখ্যাত অর্থনীতিবিদ, শিক্ষক, চিকিৎসকসহ পেশার মানুষের জন্য দিকনির্দেশনা।’ সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন, সমবায় অধিদপ্তরের নিবন্ধক ও পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. শরিফুল ইসলাম, রাজশাহী বিভাগীয় কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর। রাজশাহী বিভাগীয় সমবায় কার্যালয়ের যুগ্ম নিবন্ধক মো. মোখলেসুর রহমান অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। এতে রাজশাহী রেঞ্জ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি (অপারেশন) সাইফুল ইসলামসহ রাজশাহী বিভাগের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের সমবায় কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধে বঙ্গবন্ধর সমবায়ভিত্তিক চাষাবাদ পদ্ধতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সমবায়ভিত্তিক কৃষি মডেল আলোচনা করা হয়। সেমিনারে অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে সমবায়ভিত্তিক কৃষি বাস্তবায়নের সম্ভাবনা ও বিদ্যমান চ্যালেঞ্জ নিয়ে আলোচনা হয়। সেমিনারের শেষ পর্যায়ে প্রতিমন্ত্রী ‘উন্নত জাতের গাভী পালনের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত মহিলাদের জীবনযাত্রার মান’ শীর্ষক সমাপ্ত প্রকল্পের আবর্তক তহবিল থেকে ৩৪ সুবিধাভোগীকে ১ লাখ টাকা করে ঋণের চেক বিতরণ করেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App