×

খবর

ট্রেনের ঈদ টিকেট বিক্রি আজ থেকে শুধুই অনলাইনে

Icon

প্রকাশ: ০২ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : ঈদুল আজহা উপলক্ষে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট আজ রবিবার থেকে বিক্রি শুরু করছে বাংলাদেশ রেলওয়ে। আগামী ৫ দিন এ টিকেট বিক্রি চলবে। আজ ২ জুন বিক্রি করা হবে ১২ জুনের টিকেট। আগামী ১৭ জুন ঈদুল আজহার দিন ধরে এবারো শতভাগ অনলাইনেই অগ্রিম টিকেট বিক্রি হবে। তবে চাপ কমাতে দুই শিফটে বিক্রি হবে টিকেট।

আগামীকাল ৩ জুন বিক্রি করা হবে ১৩ জুনের টিকেট। ৪ জুন ১৪ জুনের এবং ৫ জুন ১৫ জুনের টিকেট বিক্রি করবে রেলওয়ে। শেষ দিন ৬ জুন ১৬ জুনের টিকেট দেয়া হবে। পশ্চিমাঞ্চলের টিকেট বিক্রি শুরু হবে প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে। আর পূর্বাঞ্চলের টিকেট বিক্রি শুরু হবে দুপুর ২টা থেকে। পাশাপাশি নাড়ির টানে বাড়ি ফেরা মানুষের সেবায় চলবে ১০ জোড়া ঈদ স্পেশাল ট্রেন। অগ্রিম টিকেট পেতে যাত্রীরা আজ সকাল ৮টা থেকে অনলাইন যুদ্ধে নামবেন। যার মোবাইল ফোন যত ফাস্ট তিনি তত এগিয়ে থাকবেন। তবে একজন ৪টির বেশি টিকেট কিনতে পারবেন না। এদিকে অনলাইনে টিকেটের সার্ভার হ্যাং হওয়ার আশঙ্কাও করছেন অনেকে।

ফিরতি টিকেট দেয়া হবে ১০ জুন থেকে। এদিন মিলবে ২০ জুনের টিকেট। ক্রমান্বয়ে ১১ জুন ২১ জুনের, ১২ জুন ২২ জুনের, ১৩ জুন ২৩ জুনের এবং ১৪ জুন বিক্রি হবে ২৪ জুনের ফিরতি টিকেট। সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে রেলমন্ত্রী মো. জিল্লুল হাকিম এসব তথ্য জানান।

এদিকে ঈদযাত্রা উপলক্ষে রাজধানীর কমলাপুর, বিমানবন্দরসহ দেশের গুরুত্বপূর্ণ স্টেশনগুলোয় বাঁশের বেড়া দিয়ে বিনা টিকেটের যাত্রী নিয়ন্ত্রণের ব্যবস্থা করতে চলেছে রেলওয়ে। এছাড়া যাত্রীরা যেন টিকেট হাতে নিয়ে সুশৃঙ্খলভাবে স্টেশনে প্রবেশ করতে পারেন সেজন্য থাকছে কয়েক স্তরের টিকেট চেকিং ব্যবস্থা। স্টেশনে থাকবে হেল্প ডেক্স। প্রতিটি যাত্রী যেন ট্রেনে উঠে নিজের সিটে বসতে পারেন সে জন্য পুলিশ, আরএনবি, আনসার ও ভলেন্টিয়াররা সহায়তা করবেন।

কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার মাসুদ সারওয়ার জানান, এবারের ঈদযাত্রা নির্বিঘœ করতে রেলওয়ে ব্যাপক ব্যবস্থা নিচ্ছে। আজ রবিবার থেকে অনলাইনে শতভাগ স্বচ্ছতার সঙ্গে টিকেট বিক্রি শুরু হবে। তবে চাহিদার তুলনায় টিকেটের সংখ্যা অনেকাংশে কম। এবার কমলাপুর থেকে ৪২টি আন্তঃনগর ট্রেনের জন্য দিনে প্রায় ৩৫ হাজার টিকেট বিক্রি হবে। আর যাত্রার দিন ট্রেনের দ্বিতীয় শ্রেণিতে ২৫ শতাংশ স্টান্ডিং টিকেট বিক্রি করা হবে। সব মিলিয়ে ৫০ হাজারের মতো যাত্রী প্রতিদিন কমলাপুর থেকে দেশের বিভিন্ন গন্তব্যে যেতে পারবেন। তবে বিনা টিকেটে কাউকে স্টেশনচত্ত্বরে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App