×

খবর

খুলনায় ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় রোল মডেল

Icon

প্রকাশ: ৩০ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

শেখ সিরাজ উদ দৌলা লিংকন, কয়রা (খুলনা) থেকে : দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী মহিববুর রহমান বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় গোটা বিশ্বে রোল মডেল। বিগত বছরের ঘূর্ণিঝড়সহ সব দুর্যোগে বঙ্গবন্ধুকন্যার নিবিড় পর্যবেক্ষণ ও নির্দেশনায় আমরা যথাসময়ে প্রস্তুতি নিয়ে মানুষের দুর্দশা লাঘব ও জানমালের ক্ষতি কমাতে পেরেছি।

গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় ঘূর্ণিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে খুলনার কয়রা উপজেলার কপোতাক্ষ ডিগ্রি কলেজ চত্বরে দুর্গতদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণের সময় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, শুধু বাংলাদেশ নয় বিশ্বের বিভিন্ন দেশের দুর্যোগ মোকাবিলাতেও আমরা সাহায্য করে থাকি। ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন, আপনি সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট দেখে আসবেন এবং কয়রা পাইকগাছাকে নিজের এলাকা মনে করে, সেখানে নামবেন ও মানুষের দুঃখ দুর্দশার কথা শুনবেন। প্রধানমন্ত্রী আমাকে আরো বলেছেন, ঘূর্ণিঝড় রেমালে যে ক্ষতি হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী একনেকের সভায় আমাকে নির্দেশনা দিয়েছেন, আমি যাওয়ার আগে তুমি দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার সব মানুষের কাছে যাবে। সেখানকার মানুষের কাছে আমার সালাম পৌঁছে দেবে। ঘূর্ণিঝড় রেমালে আপনাদের যে ক্ষতি হয়েছে, তা থেকে কাটিয়ে ওঠার জন্য সরকারের সহায়তা আপনারা পাবেন।

সব মন্ত্রণালয়কে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে ক্ষয়ক্ষতির রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাখিলের জন্য নির্দেশ দেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী রিপোর্ট পাওয়ার পর কার্যকর পদক্ষেপ নেবেন।

আগামীতে দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে সভাও অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে দ্রুত সমস্যা সমাধানের পদক্ষেপ নেয়া হবে।

তিনি আরো বলেন, যত দ্রুত সম্ভব পানি উন্নয়ন বোর্ডের ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধগুলো সংস্কার করা হবে।

বক্তৃতা শেষে সরকারপ্রধানের পক্ষ থেকে তিনি দুর্গত মানুষের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রীর সফরসঙ্গী ছিলেন ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব।

এতে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনের সংসদ সদস্য মো. রশীদুজ্জামান বলেন, কয়রা এলাকায় বেড়িবাঁধ নির্মাণের কাজ চলমান। তবে তিনি প্রতিমন্ত্রীর কাছে দাবি তুলে বলেন, টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণের ক্ষেত্রে বাঁধের দুপাশে কংক্রিটের গাঁথুনি করে মাঝখান দিয়ে যদি আমরা বেড়িবাঁধ তৈরি করি তাহলে সেটি হবে বেশি টেকসই।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বি এম তরিক উজ-জামান। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব এনডিসি কামরুল হাসান, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়ের মহাপরিচালক মিজানুর রহমান, খুলনার জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন, খুলনার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ সাইদুর রহমান (পিপিএম) প্রমুখ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App