×

খবর

ই-সিগারেট ও ভেপিং পণ্য নিষিদ্ধের প্রস্তাব

তামাক কোম্পানিগুলোর বিরোধিতা

Icon

প্রকাশ: ২৯ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : ই-সিগারেট ও ভেপিং পণ্যকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক হুমকি হিসেবে অভিহিত করেছে। জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় ইতিবাচক পদক্ষেপ হিসেবে ইতোমধ্যে ভারত, শ্রীলঙ্কা, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুরসহ ৩৪টি দেশ ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করেছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের খসড়া সংশোধনী চূড়ান্ত করার মাধ্যমে বাংলাদেশেও এসব পণ্যের উৎপাদন, আমদানি, বাজারজাতকরণ এবং বিক্রয় নিষিদ্ধ করতে হবে। তবে ইতোমধ্যেই ই-সিগারেট ও ভেপিং পণ্য নিষিদ্ধের প্রস্তাব সংবলিত খসড়া তামাক নিয়ন্ত্রণ আইনের বিরোধিতায় তৎপর হয়ে উঠেছে তামাক কোম্পানি। গতকাল মঙ্গলবার গবেষণা ও অ্যাডভোকেসি প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞার (প্রগতির জন্য জ্ঞান) এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বেসরকারি সংস্থা ‘পলিসি এক্সচেঞ্জ বাংলাদেশ’ ‘পলিসি ফর প্রগ্রেস : টুওয়ার্ডস হার্ম রিডাকশন’ শিরোনামে একটি জাতীয় দৈনিকের সঙ্গে চলতি বছরের ২৭ মে অনুষ্ঠিত গোলটেবিল বৈঠকে অংশগ্রহণকারীদের কয়েকজন ফিলিপ মরিসের (পিএমআই) কর্মকাণ্ডের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত। আগেও তারা পিএমআইয়ের অর্থপুষ্ট ফাউন্ডেশন ফর এ স্মোক ফ্রি ওয়ার্ল্ডের (বর্তমানে গেøাবাল অ্যাকশন টু অ্যান্ড স্মোকিং নামে পরিচিত) অনুদানপ্রাপ্ত ফোরামে অংশগ্রহণ করেছে।

উল্লেখ্য, ই-সিগারেট ও ভেপিং ব্যবহার উৎসাহিত করতে ভয়েস অব ভেপার্স এবং এশিয়া হার্ম রিডাকশন অ্যালায়েন্স এই একই আলোচকদের নিয়ে একটি সম্মেলন এবং গোলটেবিল বৈঠক করেছিল ২০২৩ সালে এবং যার নেপথ্যে ছিল ফাউন্ডেশন ফর এ স্মোক ফ্রি ওয়ার্ল্ডের অনুদানপ্রাপ্ত সংস্থা এবং প্রতিনিধি। ভয়েস অব ভেপার্স দীর্ঘদিন ধরেই বাংলাদেশে ই-সিগারেট ও ভেপিং পণ্যের প্রসারে কাজ করছে এবং এটি ওয়ার্ল্ড ভেপার্স অ্যালায়েন্সের অফিসিয়াল পার্টনার, যার অর্থ সহায়তা আসে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো (বিএটি) থেকে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App