×

খবর

ওবায়দুল কাদের

এমপি আনার অপকর্মে জড়িত কিনা, তদন্তে বেরিয়ে আসবে

Icon

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

এমপি আনার অপকর্মে জড়িত  কিনা, তদন্তে বেরিয়ে আসবে

কাগজ প্রতিবেদক : কলকাতায় খুন হওয়া দলীয় সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীম আনার অপরাধে জড়িত কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ভারতের সংবাদমাধ্যমে এসেছে চোরাচালানের কথা। তার মৃত্যুর আগে দেশের কোনো সাংবাদিকের অনুসন্ধানী প্রতিবেদনে কেন বিষয়টি এলো না? গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে নবগঠিত যুব ও ক্রীড়া উপকমিটির সদস্যদের পরিচিতি সভায় তিনি এ প্রশ্ন তোলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আনোয়ারুল আজীম অপকর্মে জড়িত কিনা, তা তদন্তে বেরিয়ে আসবে। তদন্ত শেষ হওয়ার আগে কিছু বলতে পারছি না। এমপি আনারকে কলকাতায় হত্যা করা হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, পূর্ণ তদন্ত হওয়ার আগে আমরা তো বলতে পারছি না। তবে সে আওয়ামী লীগের এমপি। সে কী ছিল সেটা বড় কথা না। সে যে এলাকায় প্রতিনিধিত্ব করে, সেই এলাকায় গিয়ে দেখুন। তার জন্য শোকার্ত মানুষের হাহাকার। তিনি বলেন, সে (আনার) প্রতিনিয়ত কোনো গাড়ি নয়, মোটরসাইকেলে করে এলাকা ঘুরত। তাকে আমরা তৃতীয়বার মনোনয়ন দিয়েছি জনপ্রিয়তা দেখে। ভেতরে সে কোনো অপকর্ম করে কিনা এসব যখন প্রমাণ হয় তখন শেখ হাসিনা কাউকে ছাড় দেন না, দলের লোক হলেও। ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি তার।

এ সময় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুলকে উদ্দেশ করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১৫ আগস্টে বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জিয়াউর রহমান জড়িত না থাকলে খুনিদের কেন নিরাপদে বিদেশে পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দিলেন? বিভিন্ন দূতাবাসে খুনিদের চাকরি দিয়েছেন। সংবিধানের পঞ্চম সংশোধনী এনে খুনিদের দায়মুক্তি দিয়ে বিচারের পথ রুদ্ধ করেছেন। সাংবিধানিকভাবে খুনিদের বিচারের পথ কেন রুদ্ধ করলেন? মির্জা ফখরুলের কাছে জানতে চাই। সেতুমন্ত্রী বলেন, বিএনপি বলছে- আজ ছাত্রলীগ, যুবলীগ নাকি অর্থ পাচার করছে। অর্থ পাচারে বিএনপি সুপরিচিত। সিঙ্গাপুর আমেরিকায় কে অর্থ পাচার করেছে? তারেক রহমান ও কোকো। সিঙ্গাপুরে পাচার হওয়া অর্থের একটা অংশ উদ্ধার করা হয়েছে। এফবিআই ঢাকায় এসে সাক্ষী দিয়ে গেছে। নিজেরা যে অপরাধে অপরাধী তার দায় তারা ছাত্রলীগ ও যুবলীগের ওপর চাপাতে চায়। এরা কত মিথ্যাচার অপপ্রচার করতে পারে?

বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গন নিয়ে হতাশার কোনো কারণ নেই জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ক্রিকেট অনেক এগিয়ে গেছে। ফুটবল আরো এগোতে পারত। বিশ্বকাপ ফুটবলে যখন দেখি আইসল্যান্ডের মতো দেশ খেলছে তখন ভাবি- আমরা কেন পারি না। মন্ত্রী বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী ক্রীড়াবান্ধব। তিনি খেলোয়াড়দের বিভিন্নভাবে উৎসাহিত করার চেষ্টা করেন। ক্রীড়াঙ্গনকে উৎসাহিত করতে মাশরাফিকে আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক করা হয়েছে। তিনি বলেন, তার যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে থাকার সময় বাংলাদেশ সাফ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। বিশ্বকাপ ক্রিকেটে বাংলাদেশ খেলার সুযোগ পেয়েছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, এয়ারপোর্টে গিয়ে অনেকে ফ্লাইট মিস করত যানজটের কারণে। এখন ফার্মগেট থেকে এয়ারপোর্ট ১০ মিনিট সময় লাগে। সময়মতো এখন এয়ারপোর্টে পৌঁছানো যায়। আমার মাথার ওপর প্রধানমন্ত্রীর হাত এবং ছায়া না থাকলে কখনোই আমি এসব করতে পারতাম না।

দেশের অর্থনীতি ও দ্রব্যমূল্যের প্রসঙ্গ তুলে ওবায়দুল কাদের বলেন, অর্থনীতি কিছুটা ঝুঁকির মধ্যে পড়েছে। এরপরও প্রধানমন্ত্রী সামলে যাচ্ছেন। দক্ষিণ এশিয়ায় অন্যান্য দেশের তুলনায় বাংলাদেশের অবস্থা ভালো বলেও দাবি করেন তিনি। বলেন, মূল্য বেড়েছে, কিন্তু সরকার ঘুমিয়ে নেই।

যুব ও ক্রীড়া উপকমিটির চেয়ারম্যান মোজাফফর হোসেন পল্টুর সভাপতিত্বে ও হুইপ মাশরাফি বিন মর্তুজার সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী নাহিদ ইজাহার খান, সাবেক যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, উপকমিটির কো-চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App