×

খবর

তাইওয়ান ঘিরে ব্যাপক সামরিক মহড়া চীনের

Icon

প্রকাশ: ২৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : তাইওয়ান ঘিরে ব্যাপক সামরিক মহড়া শুরু করেছে চীন। স্থানীয় সময় গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে এই মহড়া শুরু হয়। চীনা সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, ‘তাইওয়ানের স্বাধীনতার বিচ্ছিন্নতাবাদী কার্যকলাপের কঠোর শাস্তি’ হিসেবে এই যৌথ মহড়া চালানো হচ্ছে। খবর সিনহুয়ার। সিনহুয়া বলছে, বৃহস্পতিবার সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে তাইওয়ান প্রণালী, তাইওয়ানের উত্তর, দক্ষিণ ও পূর্বে মহড়া শুরু করেছে চীনের সেনাবাহিনীর ইস্টার্ন থিয়েটার কমান্ড। পাশাপাশি তাইওয়ানের কিনমেন, মাতসু, উকিয়ু এবং ডঙিন দ্বীপপুঞ্জের চারপাশেও মহড়া চালায় চীন।

চীনের সামরিক মুখপাত্র লি সি বলেছেন, ‘তাইওয়ানের স্বাধীনতার’ নামে বিচ্ছিন্নতাবাদী কর্মকাণ্ড চালানোর কঠোর শাস্তি হিসেবে এই মহড়া চালানো হয়েছে। এছাড়া বহিরাগত শক্তির হস্তক্ষেপ ও উসকানির বিরুদ্ধেও কড়া সতর্কবার্তা ছিল এই মহড়া। গত সোমবার তাইওয়ানের নতুন প্রেসিডেন্ট লাই চিংতে শপথ নেন। এর তিন দিন পর নিজেদের শক্তি প্রদর্শন করল চীন।

শপথ গ্রহণের পর গত সোমবার জনসাধারণের উদ্দেশে নিজের প্রথম ভাষণে লাই বলেন, ‘তাইওয়ান একটি সার্বভৌম এবং স্বাধীন দেশ যার সার্বভৌমত্ব জনগণের মধ্যে রয়েছে।’ একইসঙ্গে তার সরকার তাইওয়ানের গণতন্ত্র ও স্বাধীনতার বিষয়ে কোনো ছাড় দেবে না বলেও জোর দেন তিনি।

এ সময় তিনি বেইজিংকে ‘তাইওয়ানের বিরুদ্ধে আগ্রাসন বন্ধ করতে’ এবং ‘তাইওয়ান প্রণালী ও এই অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখার’ জন্য আহ্বান জানান।

আর এর পরের দিন চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই তার এই বক্তব্যের নিন্দা করেন।

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজাখস্তানে সাংহাই সহযোগিতা সংস্থার পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে ওয়াংকে উদ্ধৃত করে বলেছে, ‘লাই চিংতে এবং অন্যদের কুৎসিত কর্মকাণ্ড যারা জাতি এবং তাদের পূর্বপুরুষদের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে তা লজ্জাজনক।’

তিনি আরো বলেন, (বিচ্ছিন্ন ভূখণ্ডের সঙ্গে) চীনের ‘পুনর্মিলন’ এবং তাইওয়ানকে ‘মাতৃভূমিতে ফিরিয়ে আনা’ থেকে বেইজিংকে কিছুই আটকাতে পারবে না। ‘তাইওয়ানের স্বাধীনতা বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সবাইকে ইতিহাসে লজ্জার স্তম্ভে স্থান পাবে।’

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App