×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

খবর

গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে উদ্ভাবনী প্রদর্শনী

Icon

প্রকাশ: ২৩ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

রাজউক অডিটোরিয়ামে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থাগুলোর অংশগ্রহণে ই-গভর্নেন্স ও উদ্ভাবন কর্মপরিকল্পনা ২০২৩-২৪ এর আওতায় ইনোভেশন শোকেসিং (উদ্ভাবনী প্রদর্শনী) অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত মঙ্গলবার এ প্রদর্শনীর আয়োজন করে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়। প্রদর্শনীতে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নবীরুল ইসলাম প্রধান অতিথি এবং অতিরিক্ত সচিব মো. হাফিজুর রহমান সভাপতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। এতে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন দপ্তর/সংস্থাগুলো তাদের উদ্ভাবনী ধারণা, সেবা ও প্রস্তাবগুলোর উপস্থাপনা প্রদান করে। এ সময় রাজউক চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মো. ছিদ্দিকুর রহমান সরকার (অব.) বলেন, উদ্ভাবনের জন্য সহযোগিতা এবং সম্মিলিত প্রচেষ্টা অপরিহার্য। উদ্ভাবনী দক্ষতা বাড়ানোর মাধ্যমে যেমন প্রদত্ত নাগরিক সেবার সহজীকরণে ভূমিকা রাখবে, তেমনিভাবে ই-গভর্ন্যান্স ও উদ্ভাবন কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

সভাপতির বক্তব্যে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. হাফিজুর রহমান বলেন, এই আয়োজনের প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে উদ্ভাবন প্রদর্শন করা। তাই সুস্থ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে কর্মকর্তা/কর্মচারীদের মধ্যে উদ্ভাবনকে উৎসাহিত করা যাবে এবং সে লক্ষ্যে যোগ্যদের স্বীকৃতি প্রদান করলে উদ্ভাবনকে প্রমোট করা যাবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. নবীরুল ইসলাম বলেন, সরকারি কর্মচারীদের দক্ষতা বাড়ানোর মাধ্যমে নাগরিক সেবা সহজীকরণ ও সুশাসন সুসংহতকরণে জনপ্রশাসনে উদ্ভাবন চর্চার ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। উদ্ভাবন উদ্যোগ গ্রহণ ও উদ্যোগ গ্রহণের সুযোগ সৃষ্টি, দক্ষতা উন্নয়ন এবং প্রয়োজনীয় নীতি-পদ্ধতি প্রণয়নে ইনোভেশন টিমগুলো উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখছে বলে আমি মনে করি।

প্রদর্শনীতে আরো উপস্থিত ছিলেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. হামিদুর রহমান খান, জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান খোন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান, গণপূর্ত অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ শামীম আখতার, খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান ব্রি. জে. এস এম মিরাজুল ইসলাম, কক্সবাজার উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর মোহাম্মদ নুরুল আবছার, রাজশাহী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত সচিব) মো. জিয়াউল হক, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছ, চেয়ারম্যান, সরকারি আবাসন পরিদপ্তরের পরিচালক (যুগ্ম সচিব) মো. শহীদুল ইসলাম ভূঞাসহ রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের সদস্য পর্ষদসহ অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা। বিজ্ঞপ্তি

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App