×

খবর

নিখোঁজের দুদিন পর কর্ণফুলীতে মিলল যুবকের মরদেহ

Icon

প্রকাশ: ১৮ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রাম অফিস : নিখোঁজের দুই দিন পর কর্ণফুলী নদীতে মিলল মো. শফি (৩৫) নামে এক যুবকের মরদেহ। গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাংলাবাজার ঘাট এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে নৌপুলিশ। সদরঘাট নৌপুলিশের ওসি একরাম উল্লাহ বলেন, কর্ণফুলী নদীর বাংলাবাজার ঘাট থেকে নিখোঁজ হওয়া শফি নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আইনানুগ প্রক্রিয়া শেষে পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। শফি কর্ণফুলীর চরপাথরঘাটা ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ডের মোহছেন আলী পাড়ার লেইঙ্গা গোষ্ঠী বাড়ির কোরবান আলীর ছেলে। এর আগে গত বুধবার দুপুর ২টার দিকে কর্ণফুলী নদীতে একটি জাহাজে মাছ আনলোড করার সময় হঠাৎ নদীতে পড়ে নিখোঁজ হন মো. শফি। পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা করলেও তাৎক্ষণিক তার সন্ধান মেলেনি। ৪৮ ঘণ্টা পর গতকাল শুক্রবার সকালে কর্ণফুলী নদীর বাংলাবাজার ঘাট থেকে তার মরদেহ ভেসে উঠতে দেখে স্থানীয়রা নৌপুলিশকে খবর দেয়। এদিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ঝরনায় নেমে তলিয়ে যাওয়া জুনায়েদ হোসেন রিমন (১৩) নামে এক স্কুলছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে চবি কলা অনুষদ ভবনের পেছনে পাহাড়ের পাদদেশে ঝরনার গভীর পানি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। মৃত জুনায়েদ হোসেন নগরীর সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র। তার বাড়ি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায়। বাসা চট্টগ্রাম নগরীর চকবাজারে। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. অহিদুল আলম জানান, জুনায়েদসহ মহসিন স্কুল ও প্রবর্তক বিদ্যাপীঠের ১০-১৫ জন সমবয়সী শিক্ষার্থী শাটল ট্রেনে করে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে চবি ক্যাম্পাসে যায়। ঘণ্টাখানেক পর তারা কলা অনুষদের পেছনে পাহাড়ের পাদদেশে গিয়ে ঝরনায় নামে। একপর্যায়ে জুনায়েদকে তারা আর পাচ্ছিল না। দুপুর ২টা পর্যন্ত তারা ঝরনায় খোঁজাখুঁজি করে। না পেয়ে প্রক্টর অফিসে যায়। প্রক্টর অহিদুল আলম বলেন, ‘প্রথমে আমরা হাটহাজারী ফায়ার স্টেশনের টিমকে নিয়ে আসি। তারা দুই ঘণ্টারও বেশি সময় খোঁজাখুঁজি করেও পায়নি। এরপর আরেকটি ডুবুরি দল শহর থেকে গিয়ে তল্লাশি শুরু করে। রাত ১০টার দিকে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App