×

খবর

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ৩ দিনের কর্মসূচি নেবে আ.লীগ

Icon

প্রকাশ: ০৭ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ৩ দিনের  কর্মসূচি নেবে আ.লীগ
কাগজ প্রতিবেদক : দলের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে টানা তিন দিনের কর্মসূচি পালন করবে আওয়ামী লীগ। সারাদেশে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন করবে দলটি। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আলোচনা সভা, সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর আনন্দ র‌্যালি এবং ‘সবুজ ধরিত্রী’ কর্মসূচির মাধ্যমে একেবারে ওয়ার্ড পর্যায় পর্যন্ত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন। গতকাল সোমবার বিকালে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভা শেষে দলটির সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এসব তথ্য জানান। তিনি আরো জানান, ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলকেও আমন্ত্রণ জানানো হবে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ২৩ জুন দলের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠান উদযাপন করা হবে। সারাদেশে থানা ও উপজেলা ছাড়াও ইউনিয়ন পর্যায়েও এ কর্মসূচি পালন করা হবে। ওইদিন বিকালে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে আমাদের পার্টির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপস্থিত থাকবেন। এছাড়া বুদ্ধিজীবী ও সমমনস্ক ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানানো হবে। বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দলের নেতাদেরও আমরা আমন্ত্রণ জানাব। দেশের প্রতিটি মসজিদ মন্দিরসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। কাদের বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘সবুজ ধরিত্রী’ কর্মসূচি নিয়েছে আওয়ামী লীগ। ওয়ার্ড পর্যায় পর্যন্ত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হবে। তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালায় আলোকসজ্জা বাদ দেয়া হয়েছে বিদ্যুৎ সংকটের কারণে। তিনি আরো বলেন, প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে আনন্দ র‌্যালি করবে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগসহ বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন। আগামী ১১ মে দলের যৌথ সভা অনুষ্ঠিত হবে। সেখানে আরো বিস্তারিত আলোচনা হবে। এরপর আমরা আরো বিস্তারিত বলতে পারব। সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস নিয়ে আলোচনা হয়েছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, বৈঠকে আমরা সমসাময়িক পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ করে সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছি। আগামী ১৭ মে আমরা বঙ্গবন্ধু কন্যা আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস পালন করব। সেদিন সকালে কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ, সহযোগী ও ভাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলো নেত্রীর সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন। সারাদেশে উপজেলা পর্যায় পর্যন্ত কর্মসূচি পালন করা হবে। দুপুরে দেশের মসজিদ মন্দিরসহ ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে বিশেষ প্রার্থনা কর্মসূচি পালিত হবে। স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিবসের আগের দিন ১৬ মে দুপুরে অসচ্ছল গরিব সাধারণ মানুষের মধ্যে খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি নেয়া হয়েছে। এদিন ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগ অফিসের অডিটোরিয়ামে বিশেষ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। তাছাড়া ১৭ তারিখে ব্যানার-ফেস্টুন, বিল বোর্ড দিয়ে আইল্যান্ডগুলো সজ্জিত করা হবে। তবে আলোকসজ্জা কর্মসূচি থাকবে না। এ সময় সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গণতন্ত্রের প্রতি বিএনপির আগ্রহ কোনদিনই ছিল না। দলটি ৭৫ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত গণতন্ত্রকে ধ্বংস করেছে। মাগুরা মার্কা ১৫ ফেব্রুয়ারি প্রহসনের নির্বাচন, ১ কোটি ২৩ লাখ ভুয়া ভোটার, হাঁ/না ভোটে ১১৪ শতাংশ ভোটার উপস্থিতি- এসবই বিএনপির সৃষ্টি। তিনি বলেন, গণতন্ত্রকে শৃঙ্খলমুক্ত করার কাজটি করেছেন শেখ হাসিনা। নির্বাচন কমিশনকে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অধীন থেকে মুক্ত করে আইন করে স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন করেছেন। ৮২টি সংশোধনী এনেছেন। আর বিএনপি কী করেছে? বিশ্বের কোনো দেশেই গণতন্ত্র শতভাগ পারফেক্ট নয় জানিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরাও পারফেক্ট এমন দাবি করি না। তবে গণতন্ত্রকে ত্রæটি মুক্ত করার চেষ্টা আমাদের রয়েছে। গণতন্ত্রকে ম্যাচুরিটি করতে আপ্রাণ চেষ্টা চলছে। উপজেলা নির্বাচনে মন্ত্রী ও এমপির স্বজনদের অনেকেই প্রার্থিতা প্রত্যাহার করেনি- এমন এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, তাদের নিবৃত্ত করার জন্য দলের বিভাগীয় দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এক্ষেত্রে তাদের আরো উদ্যোগ নিতে বলা হয়েছে। এরপরও যারা দলীয় নির্দেশ অমান্য করবে, শৃঙ্খলা ভঙ্গ করবে, তাদের কোনো না কোনোভাবে শাস্তির মুখোমুখি হতেই হবে। এ সময় তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, গত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৭৩ জন এমপি বাদ পড়েছেন- এটা কি একরকম শাস্তি নয়! মন্ত্রিপরিষদে ২৫ জন নেই। সময়মতো শাস্তি হবে। এটা একটা উদাহরণ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App