×

খবর

চক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

চিনি-লবণ মিশিয়ে তৈরি হয় নকল স্যালাইন

Icon

প্রকাশ: ০৫ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : তীব্র তাপপ্রবাহের ফলে দ্বিগুণ চাহিদা বেড়েছে স্যালাইনের। এই সুযোগ কাজে লাগিয়ে একটি চক্র রাজধানীতে তৈরি করছিল নকল স্যালাইন। চিনি ও লবণ মিশিয়ে নকল প্যাকেটে তা বাজারজাতও করছিল। এমনই একটি চক্রের তিন সদস্যকে রাজধানীর মতিঝিল থেকে অভিযান চালিয়ে গ্রেপ্তার করেছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আটককৃতরা হলেন- সজিব মিয়া, মো. রিয়াদ ও সামসুল আলম। এই চক্রের আরো এক সদস্য পলাতক রয়েছেন। তিনি হলেন সাখাওয়াত হোসেন ভূঁইয়া। তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। গতকাল শনিবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে ডিএমপির (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এসব তথ্য জানান। তিনি বলেন, চক্রটি বাজার থেকে চিনি, লবণ কিনে তা প্যাকেটজাত করে স্যালাইন হিসেবে বিলি ও বিক্রি করছিল। আমরা চক্রটির চারজনের মধ্যে তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছি। আরেকজন পলাতক রয়েছে। তার গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে। তারা আমাদের কাছে স্বীকার করেছে যে, তারা এসব নকল স্যালাইন তৈরি করেছে। ডিবি প্রধান আরো বলেন, চক্রটি এসএমসি স্যালাইন ব্র্যান্ডকে নকল করে এনএমসি লিখে মোড়ক বানাতো। আমরা তাদের কাছ থেকে ২ হাজার ৮০০ প্যাকেট নকল স্যালাইন উদ্ধার করেছি। সাত কার্টুন টেস্টি স্যালাইন উদ্ধার করা ছাড়াও বাকিগুলো তারা কোথায় কোথায় দিয়েছে, কোন ফার্মেসিতে বেচেছে তা আমরা জানার চেষ্টা করছি। তিনি বলেন, চক্রটি মানবতার ফেরিওয়ালা সেজে এসব নকল স্যালাইন বিতরণ করছিল। আবার যারা আসল মানবতার সেবক তারাও তাদের কাছ থেকে কিনছে। তারা ঢাকাসহ ঢাকার বাইরে খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে বিতরণ করছে। মানুষও এগুলো খাচ্ছে। মানুষ সাধারণত ডায়ারিয়া শূন্যতায় ভোগে। শরীরে ইলেকট্রলাইট বের হয়ে যায়। তখন মানুষ স্যালাইন খায়। এই নকল স্যালাইন খাওয়ার পর ভালোর চেয়ে খারাপই বেশি হয়। কিডনি হার্ট লিভার সমস্যা বেড়ে যায়। এমনকি ব্রেন ড্যামেজও হয়।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App