×

খবর

রাজবাড়ী-ভাঙ্গা-ঢাকা

নতুন দুই ট্রেন চালু

Icon

প্রকাশ: ০৫ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

শিবচর (মাদারীপুর) প্রতিনিধি : পদ্মাপাড়ের ৫ জেলার সঙ্গে ঢাকার রেল যোগাযোগ ব্যবস্থাকে আরো উন্নত ও সহজ করতে রাজবাড়ী-ভাঙ্গা-ঢাকা রুটে নতুন দুই ট্রেন উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল শনিবার দুপুর ১২টার দিকে মাদারীপুরের শিবচর রেলস্টেশনে এক অনুষ্ঠানে অতিথিদের সঙ্গে নিয়ে ফিতা কেটে এর উদ্বোধন ঘোষণা করেন রেলপথমন্ত্রী ও বীর মুক্তিযোদ্ধা জিল্লুল হাকিম ও জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী। এ সময় শিবচর রেলস্টেশন থেকে ঢাকা অভিমুখে যাত্রা করে একটি ট্রেন। রেল মন্ত্রণালয়-সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী সেখানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সভাপতিত্ব করেন রেলের মহাপরিচালক সরদার সাহাদাত আলী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মাদারীপুর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মুনির চৌধুরী, শিবচর উপজেলা চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ আ. লতিফ মোল্লা, নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান ডা. মো. সেলিম, পৌরসভার মেয়র মো. আওলাদ হোসেন খান প্রমুখ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে রেলমন্ত্রী, চিফ হুইপসহ অতিথিরা টিকেট কেটে ট্রেনটিতে ওঠেন। সেখানে গিয়ে ফিতা কেটে বাঁশি বাজিয়ে ট্রেনটি ছাড়েন। আজ রবিবার সকাল থেকে যাত্রী নিয়ে ট্রেন দুটির চলাচল শুরু হবে রাজবাড়ী-ভাঙ্গা-ঢাকা রুটে। মূলত একটি ট্রেন দুটি ইঞ্জিন দিয়ে পরিচালিত হবে দুটি রুটে দুটি নামে। রাজবাড়ী থেকে ট্রেনটি এসে ভাঙ্গায় যাত্রাবিরতি নেবে। সেখানে ইঞ্জিন বদলে আবার ঢাকা যাবে। এর মধ্যে ঢাকা-ভাঙ্গা রুটে ১২১ ও ১২৪ নম্বর ট্রেনটির নাম প্রস্তাব করা হয়েছে ‘ভাঙ্গা এক্সপ্রেস’। আর ভাঙ্গা-রাজবাড়ী রুটে ১২২ ও ১২৩ নম্বর ট্রেনের নাম ঠিক করা হয়েছে ‘চন্দনা এক্সপ্রেস’। ট্রেন উদ্বোধন উপলক্ষে শিবচর রেলস্টেশন চত্বরে সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সেখানে রেলমন্ত্রী জিল্লুল হাকিম বলেন, ট্রেন সুবিধায় আরো এক ধাপ এগিয়ে গেল দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে। আজ ঢাকা-ভাঙ্গা রুটে চালু হলো আরো দুটি ট্রেন। অল্প দিনের মধ্যে আরো কয়েকটি ট্রেন চালু হবে এ পথে এবং দ্রুত ভাঙ্গা থেকে বরিশাল পর্যন্ত নতুন রেলপথ নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে। রেলমন্ত্রী বলেন, আগামীতে এই পথে আরেকটি ট্রেন চালু করার কথা ভাবছি। পরের ট্রেনটি নতুন বগি দিয়ে শুরু করা হবে। ফের আগামী দুই মাসের ভেতরে ভাঙ্গা থেকে খুলনা, যশোর হয়ে বেনাপোল পর্যন্ত আরেকটি ট্রেন চালু হবে। ওই ট্রেন উদ্বোধন করবেন জাতির পিতার কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ভাঙ্গা থেকে বরিশাল হয়ে পায়রা বন্দর পর্যন্ত একটি রেললাইন তৈরি করা হবে। সেটি আটটি জেলাকে সংযুক্ত করবে। কিন্তু এই অঞ্চলের মাটি ভালো না। তাই পুরো লাইনটি হবে উড়াল। আশা করছি কিছুদিনের ভেতরে ভাঙ্গা-বরিশাল রেলপথ নির্মাণ কাজ শুরু করা যাবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App