×

খবর

নেতাকর্মীদের আব্বাস

উপজেলা পরিষদের নির্বাচন সরকারের পাতানো ফাঁদ

Icon

প্রকাশ: ০৫ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : উপজেলা পরিষদের নির্বাচন সরকারের ‘পাতানো ফাঁদ’ বলে দলের নেতাকর্মীদের সতর্ক করেছেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। জাতীয় নির্বাচনের পাশাপাশি স্থানীয় সরকারে উপজেলা নির্বাচন থেকেও দূরে থাকা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এটা আরেকটা ফাঁদ। এর আগে বিএনপিকে জাতীয় নির্বাচনে নিতেও ফাঁদ পেতেছিল সরকার, কিন্তু বিএনপি সেই নির্বাচন প্রত্যাখ্যান করেছে। গতকাল শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এক মানববন্ধনে এসব কথা বলেন তিনি। ঢাকা মহানগর দক্ষিণের যুগ্ম আহ্বায়ক হাবিবুর রশিদ হাবিবের মুক্তির দাবিতে হাবিবুর রশিদ হাবিব মুক্তি পরিষদ এই মানববন্ধনের আয়োজন করে। নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারবে না দাবি করে মির্জা আব্বাস বলেন, যে নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে পারবে না, সেই নির্বাচনের প্রয়োজন বাংলাদেশে নেই। রাজতন্ত্র কায়েম করতে পারেন, রাজতন্ত্র ঘোষণা দিতে পারেন, কিন্তু নির্বাচনের কথা আপনাদের মুখ দিয়ে মানায় না। ৭ জানুয়ারির সংসদ নির্বাচনে জনগণ ভোট দিতে যায়নি দাবি করে তিনি বলেন, লোকজন এবারো যাবে না। সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র চলছে বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যে বক্তব্য রেখেছেন, তা নিয়ে প্রতিক্রিয়ায় আব্বাস বলেন, আমি তো সরকারই দেখি না। এটা তো নির্বাচিত সরকার নয়। সুতরাং, এই সরকারকে উৎখাত করার দায়দায়িত্ব বিএনপি বহন করে না। গ্রেপ্তার করে পৃথিবীর কোনো আন্দোলন কেউ থামাতে পারেনি দাবি করে তিনি বলেন, একদিন এই ‘স্বৈরশাসকের’ পতন ঘটবেই জনরোষের মুখে, এটাকে কেউ ঠেকিয়ে রাখতে পারবে না। আমাদের নেতা তারেক রহমান একদিন এই দেশে ফেরত আসবেন। তিনি এই দেশে ফিরে এসে নেতৃত্ব দেবেন। খালেদা জিয়া দেশের সর্বনাশ করে গেছেন বলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের জবাবে আব্বাস বলেন, তিনি নাকি ঠিকঠাক করছেন। কী ঠিক করছেন আমার জানা নেই। দেশের মানুষের পেটে ভাত নেই অভিযোগ করে তিনি বলেন, যারা তিন বেলা খেতেন তারা দুই বেলা খায়, যারা দুই বেলা খেতেন তারা এক বেলা খায়, যারা এক বেলা খেতেন তারা আধাপেটি খায়। এই হচ্ছে দেশের অবস্থা। তিনি দেশের উন্নয়ন করেছেন। এই উন্নয়ন চুরির উন্নয়ন। এটা দেশের মানুষ কখনো মেনে নেবে না। হাবিবুর রশিদ হাবিব মুক্তি পরিষদের আহ্বায়ক এ এ জহির উদ্দিন তুহিনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এস এম জিলানি, যুব দলের সাধারণ সম্পাদক মোনায়েম মুন্নাও বক্তব্য রাখেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App