×

খবর

ওবায়দুল কাদের

আইনের ফাঁদে আটকে আছেন খালেদা জিয়া

Icon

প্রকাশ: ০৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

 আইনের ফাঁদে  আটকে আছেন  খালেদা জিয়া
কাগজ প্রতিবেদক : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আইনের ফাঁদে আটকে আছেন মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, তার বিরুদ্ধে তত্ত্বাবধায়ক সরকার মামলা করেছে। সরকার কোনো মামলা করেনি। আওয়ামী লীগ করেনি। সেই মামলায় গ্রেপ্তার ও বন্দি হয়েছেন। বরং শেখ হাসিনার উদারতার জন্য শাস্তি স্থগিত রেখে বাড়িতে থাকা ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এমনকি বিদেশ থেকে চিকিৎসক এনে চিকিৎসা করায় সহযোগিতা করেছে। গতকাল শুক্রবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। বিএনপির সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে বিএনপি নেতাকর্মীরা রাজপথে কোনো কর্মসূচি দিতে পারেনি। তারা ব্যর্থ হয়েছে। বিক্ষোভ মিছিল করতেও ব্যর্থ হয়েছে। বিএনপি ঝিমিয়ে পড়েছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, নির্বাচন ঠেকাতে আন্দোলনের নামে অগ্নিসন্ত্রাস তৈরি করে জনগণের সাপোর্ট হারিয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের মধ্যে কোনো মিল নেই। মন্ত্রী বলেন, যে যেটাই বলুক, জনগণের সম্পৃক্ততা ছাড়া আন্দোলন কোনো দিন সফল হতে পারে না। বিএনপি নিজেরাই এখন বিভক্ত। তাদের দলের বহুদিন ধরে কাউন্সিল নেই। তাদের ঘরোয়া রাজনীতি বলতে গেলে ঝিমিয়ে পড়েছে। নেতায় নেতায় মিল নেই। দল আবার ক্ষমতায় আসবে- এ ধরনের আশাবাদ নেতারা ব্যক্ত করলেও কর্মীরা এই আশার কারণ দেখছেন না। কর্মীরাও হতাশ হয়ে পড়েছেন। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ এখনো বিদেশি শক্তির চাপ অনুভব করে কিনা, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের আগে চাপ স্পষ্ট ছিল। কিন্তু যারা চাপ দেবেন, তারা নিজেরাও এখন যথেষ্ট চাপে আছেন। কারণ, আরব বসন্তের স্পর্শ আটলান্টিকের ওপারে গিয়েও পড়েছে। তা আমরা দূর থেকেই দেখতে পারছি। উপজেলা নির্বাচনে নিজের ভাইয়ের প্রার্থী হওয়া নিয়েও সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, একটা প্রশ্ন হয়তো আপনারা করতে পারেন, আমার স্বজনও একজন প্রার্থী হয়েছেন, আমার নিজের উপজেলায়। সেখানে প্রশ্নটা হচ্ছে আমার এই প্রার্থিতার পেছনে সমর্থন আছে কিনা, সম্মতি আছে কিনা, আমি তার পক্ষে প্রশাসন বা নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছি কিনা। সরজমিন সেটি দেখার বিষয়। আমার দলের এর সঙ্গে কোনো সংযোগ নেই। নেতৃস্থানীয় কারো সমর্থন নেই। আমার সমর্থন তো প্রশ্নই ওঠে না। কাজেই এটি শেষ পর্যন্ত সরে যাবে না, এটিও বলা যায় না। এছাড়া স্বজন বলতে প্রধানমন্ত্রী সুনির্দিষ্টভাবে সন্তান ও স্ত্রীকে বুঝিয়েছেন। যা বৃহস্পতিবার সকালে এবং রাতের সভায় তিনি (প্রধানমন্ত্রী) খোলাসা করেছেন। আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের বিষয়ে সাধারণ সম্পাদক বলেন, আমরা ব্যাপক উদ্?যাপনের মধ্য দিয়ে আওয়ামী লীগ প্রতিষ্ঠার ৭৫ বছর পালন করব। আগামী ১৭ মে আমাদের নেত্রীর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে সারা দেশে কর্মসূচি পালন করা হবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App