×

খবর

পশ্চিমবঙ্গ

রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ

Icon

প্রকাশ: ০৪ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল সিভি আনন্দ বোসের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগ করেছেন রাজভবনে কর্মরত এক নারীকর্মী। গত বৃহস্পতিবার কলকাতার হেয়ার স্ট্রিট থানায় চাঞ্চল্যকর এমন অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই নারী। লিখিত অভিযোগে ওই নারী জানান, চাকরি দেয়ার প্রতিশ্রæতি দিয়ে শ্লীলতাহানি করেছেন রাজ্যপাল। একবার নয় দুবার এমন পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়েছেন তিনি। এ ঘটনার প্রতিবাদে রাজ্যের অর্থ দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য গতকাল শুক্রবার বিকালে কলকাতার মৌলালি মোড় থেকে ধর্মতলার ডরিনা ক্রসিং পর্যন্ত এক প্রতিবাদ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেন। তবে এই সমাবেশের ডাক দেয়ার পরেই রাজ্যপালের বাসভবন ও দপ্তর রাজভবনে চন্দ্রিমা ভট্টাচার্যের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে রাজভবন। নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে রাজভবনে পুলিশের প্রবেশের ওপর। এমনকি কলকাতা ছাড়া দার্জিলিং ও বারাকপুরের রাজভবনেও চন্দ্রিমার প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতেই রাজ্যপাল এক্স হ্যান্ডেলে এক বার্তায় বলেছেন, ‘তার বদনাম করতে কে বা কারা ভোটের বাজারে ফায়দা লুটতে চেষ্টা চালাচ্ছে। সত্যের জয় হবেই। কৌশলী কোনো আখ্যানের সামনে আমি মাথা নত করতে রাজি নই। যদি আমার বদনাম করে কেউ ফায়দা লুটতে চান, ঈশ্বর তাদের মঙ্গল করুন। কিন্তু তারা বাংলায় দুর্নীতি ও হিংসার বিরুদ্ধে আমার লড়াই থামাতে পারবে না।’ প্রসঙ্গত সাম্প্রতিক বেশ কয়েক বছর ধরে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান রাজ্যপাল পদের সংঘাত চরমে উঠেছে। ভারতের বর্তমান উপরাষ্ট্রপতি ও পশ্চিমবঙ্গের সাবেক রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়ের সময় থেকেই রাজ্যপালদের যা আচরণ ও কাজের পদ্ধতি তা নিয়ে বারবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল ও সরকারের পক্ষ থেকে অভিযোগ উঠেছে। রাজভবনকে কার্যত বিজেপির কার্যালয়ে পরিণত করা বা কেন্দ্রের শাসক দলের অ্যাজেন্ডা নিয়ে কাজ করার অভিযোগে বারবার কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান রাজ্যপাল আনন্দ বোসও বিজেপি ঘনিষ্ঠতার অভিযোগে বারবার ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের সমালোচনার মুখে পড়েছেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App