×

খবর

পূর্ব শত্রæতার জের

মহম্মদপুরে দুপক্ষের সংঘর্ষ ও ঘরবাড়ি ভাঙচুর

Icon

প্রকাশ: ২৮ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

মহম্মদপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি : পূর্ব শত্রæতার জেরে মাগুরার মহম্মদপুরে দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে পাঁচ থেকে ছয়টি বাড়িতে হামলা ও ঘর ভাঙচুর করা হয়। গতকাল শনিবার দুপুরে উপজেলার পলাশবাড়ীয়া ইউনিয়নের চর যশোবন্তপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। দ্রুত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। কিন্তু পুলিশ পৌঁছার আগেই ওবায়দুর, রাকিব, রমজান, রুপালী মেম্বর ও কায়েম মোল্যাসহ কয়েকটি বাড়িতে আক্রমণ ও ঘর ভাঙচুর করা হয়েছে। স্থানীয় লোকজন জানান, গত এক বছর আগে স্থানীয় একটি মেয়েলি বিষয় নিয়ে এলাকাভিত্তিক মাতব্বর রবিউল ইসলাম ও সাকাওয়াত হোসেনের গ্রুপের সঙ্গে কায়েম মোল্যা ও নান্নু মোল্যার গ্রুপের মনোমালিন্য তৈরি হয়েছিল। এই বিষয় নিয়ে বছর ধরেই এলাকায় চলতে থাকে জল্পনা-কল্পনা ও ছোটখাটো বিষয় নিয়ে উত্তেজনার ঘটনারও মাঝেমধ্যে ঘটতে থাকে। দীর্ঘদিনের এই শত্রæতাকে কেন্দ্র করে গত চার থেকে পাঁচ দিন আগে দুই গ্রুপের মহিলাদের মধ্যে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে রবিউল ও সাকাওয়াত গ্রুপের নবিরণ নেছা (৪৫) নামের এক মহিলাকে মারধর করে আহত করে কায়েম ও নান্নু গ্রুপের মহিলারা। আহত নবিরণ নেছাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয় এবং এখনো ফরিদপুরে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গুরুতর আহত নবিরণ নেছার মৃত্যুর সংবাদ এলাকায় প্রায়ই উত্তেজনার সৃষ্টি করে। সে অনুযায়ী গত শুক্রবার রাতে নবিরণ মারা গেছে এমন খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে রাতেই দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। পরের দিন গতকাল দুপুরে রবিউল ও সাকাওয়াত গ্রুপের লোকজন হঠাৎ কায়েম ও নান্নু গ্রুপের লোকজনের ঘরবাড়িতে আক্রমণ চালায় এবং ঘর ভাঙচুর। প্রতিপক্ষ প্রস্তুতি নিয়ে বের হওয়ার আগেই পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং এখনো পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। মহম্মদপুর থানা ওসি বোরহান উল ইসলাম জানান, বড় ধরনের সংঘর্ষ ঘটার আগেই পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন এবং পুনরায় সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ বিষয়ে এখনো কোনো মামলা হয়নি।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App