×

খবর

ছাত্র ইউনিয়নের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ড. প্রভাত পাটনায়েক

‘টাকা আছে যার শিক্ষা তার’ নীতিতে চলছে শিক্ষাব্যবস্থা

Icon

প্রকাশ: ২৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাবি প্রতিনিধি : আমাদের এখানকার শিক্ষাব্যবস্থা পশ্চিমাদের অনুকরণে তৈরি করায় শিক্ষার্থীদের অনেক টাকা ব্যয় করতে হয়। বর্তমানে ‘টাকা আছে যার শিক্ষা তার’- এই নীতিতে শিক্ষাব্যবস্থা চলছে। এমন মন্তব্য ভারতের জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর ইকোনমিক স্টাডিজ অ্যান্ড প্ল্যানিংয়ের এমেরিটাস অধ্যাপক ড. প্রভাত পাটনায়েকের। গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মোজাফফর আহমেদ চৌধুরী মিলনায়তনে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ‘নব্য উদারবাদের গোলকধাঁধায় শিক্ষা : সংকট থেকে উত্তরণের পথ’ শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনকালে এই মন্তব্য করেন তিনি। সেমিনারে সংগঠনটির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে ২০টি দেশের ৩৪টি ছাত্র-যুব সংগঠন শুভেচ্ছা জানায় এবং ১২টি ছাত্র সংগঠন বক্তব্য দেয়। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল রনি। এছাড়াও বক্তৃতা করেন জেনারেল প্যালেস্টেনিয়ান স্টুডেন্টস ইউনিয়নের মুখপাত্র ইসহাক নমুরা, অল নেপাল ন্যাশনাল ইন্ডিপেন্ডেন্ট স্টুডেন্টস ইউনিয়নের (রেভ্যুলেশনারি) ভাইস প্রেসিডেন্ট মদন ভুল, গণতান্ত্রিক ছাত্র জোটের সমন্বয়ক অঙ্কন চাকমা, ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রাগীব নাঈম প্রমুখ। অধ্যাপক প্রভাত পাটনায়েক বলেন, বর্তমানে শিক্ষার্থীরা ভাবছে টাকার বিনিময়ে তারা শিক্ষা পাচ্ছে। এতে তারা এটিকে বিনিয়োগ হিসেবে ধরে ব্যক্তিস্বার্থ নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ছে। শিক্ষার বাণিজ্যিকীকরণের ফলে শিক্ষিত জনগোষ্ঠী দেশের কাজে না এসে কাজে লাগছে বহুজাতিক প্রতিষ্ঠানের। বর্তমান প্রাইভেট শিক্ষা বহুজাতিক কোম্পানি অথবা সরকারের চাকর ব্যতিত বিশেষ কিছু তৈরি করতে পারছে না। তিনি আরো বলেন, মানুষের মৌলিক অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হবে। তাহলেই আমরা এমন একটি শিক্ষানীতি নিশ্চিত করতে পারব, যাতে করে ভবিষ্যতে আমাদের শিক্ষার্থীরা তাদের দেশের কথা জানতে পারবে, দেশকে এগিয়ে নিতে কাজ করতে পারবে। স্বাগত বক্তব্যে ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল রনি নব্য উদারবাদের বিরুদ্ধে আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ছাত্র-ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানান। এ সময় জেনারেল প্যালেস্টেনিয়ান স্টুডেন্টস ইউনিয়নের মুখপাত্র ইসহাক নমুরা বলেন, ফিলিস্তিনে টানা ২০০ দিনেরও বেশি সময় ধরে চলা গণহত্যায় জাতিসংঘে যুদ্ধবিরতি বনাম ভেটোর খেলা চলে; আর অন্যদিকে এই জাতিসংঘই আমাদের শিক্ষাব্যবস্থাকে এমন করে রেখেছে, যেন শিক্ষার্থীরা ৯টা-৫টা অফিস করা ছাড়া আর কোনো কাজই না করতে পারে। সমাপনী বক্তব্যে ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রাগীব নাঈম বলেন, নব্য উদারবাদী নীতির প্রভাবে বিশ্বব্যাংক, এডিবি ও অন্যান্য মুনাফালোভী প্রতিষ্ঠানের কাছে নতি স্বীকার করে বাংলাদেশের বর্তমান সরকার শিক্ষাসহ অন্যান্য খাতে ক্রমাগত বরাদ্দ ও ভর্তুকি কমাচ্ছে। বিশ্বের অন্য অনেক দেশেও একই পরিস্থিতি বিদ্যমান। এই বৈশ্বিক সংকট মোকাবিলা করতে অচিরেই আমরা বৃহত্তর আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক ছাত্র ঐক্যের ডাক দেব।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App