×

খবর

চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ

নতুন চেয়ারম্যান ইউনুছ

Icon

প্রকাশ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রাম অফিস : নানা জল্পনা-কল্পনা শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ ইউনুছই চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নতুন চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন। গতকাল বুধবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে তার নিয়োগসংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি হয়েছে। আগামী তিন বছরের জন্য তাকে এ পদে নিয়োগ দেয়া হয়। তিনি বর্তমান চেয়ারম্যান এম জহিরুল আলম দোভাষের স্থলাভিষিক্ত হবেন। গতকাল বুধবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চুক্তি ও বৈদেশিক নিয়োগ শাখার উপসচিব ভাস্কর দেবনাথ বাপ্পি স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ আইন, ২০১৮ এর ধারা-৭ অনুযায়ী মোহাম্মদ ইউনুছকে অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের সঙ্গে কর্ম-সম্পর্ক পরিত্যাগের শর্তে যোগদানের তারিখ থেকে পরবর্তী ৩ (তিন) বছর মেয়াদে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান পদে নিয়োগ দেয়া হলো। এর আগে ২০১৯ সালে নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এম জহিরুল আলম দোভাষকে দুই বছরের জন্য নিয়োগ দেয়া হয়। পরে ২০২১ সালে দ্বিতীয় দফায় তিন বছরের জন্য চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ পান তিনি। সত্তরের দশকে চট্টগ্রাম মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করা মোহাম্মদ ইউনুছ বর্তমানে আওয়ামী লীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য। জানা গেছে, প্রজ্ঞাপন হওয়ার পর নতুন চেয়ারম্যান গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে গিয়ে যোগদান করেন। মন্ত্রণালয় থেকে সিডিএ’র সব পদস্থ অফিসারকে ঢাকায় ডাকা হয়েছে। আজ মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী ও সচিব এবং নতুন চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে কর্মকর্তাদের নিয়ে সমন্বয় সভা হবে। সেটা শেষ করে চট্টগ্রামে ফিরে আগামী রোববার তিনি সিডিএ কার্যালয়ে যাবেন। উল্লেখ্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা ইউনুছ ১৯৫৫ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। ছাত্রজীবন থেকে সম্পৃক্ত ছিলেন ছাত্র রাজনীতিতে। ১৯৭৩ থেকে ১৯৭৫ সাল পর্যন্ত দুই মেয়াদে চট্টগ্রাম শহর ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি। ১৯৭৭ থেকে ১৯৭৮ পর্যন্ত চট্টগ্রাম কারাগারে বন্দি অবস্থায় চট্টগ্রাম শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ১৯৮০ থেকে ১৯৮২ সাল পর্যন্ত চট্টগ্রাম নগর ছাত্রলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। মুক্তিযুদ্ধের শুরুতে চট্টগ্রামে তৎকালীন পাকিস্তান নৌবাহিনীর কমান্ডারের বাসভবনে দুঃসাহসিক আক্রমণ চালাতে গিয়ে ধরা পড়েছিলেন তিনি। নির্যাতন সয়ে একপর্যায়ে ‘পাগল’ সেজে হানাদার বাহিনীর বন্দিশালায় মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে চলে গিয়েছিলেন রণাঙ্গনে। পঁচাত্তরে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যার প্রতিশোধ নিতে মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর নেতৃত্বে যে কয়জন মুক্তিযোদ্ধা অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছিলেন, ইউনুছ তাদের একজন। সিডিএ চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাওয়ার পর এক প্রতিক্রিয়ায় মোহাম্মদ ইউনুছ বলেন, ‘যারা দেশের জন্য, বঙ্গবন্ধুর জন্য মাঠে-ময়দানে তৃণমূল পর্যায়ে রাজনীতি করেছে, সংগ্রাম করেছে, ত্যাগ স্বীকার করেছে, বঙ্গবন্ধুকন্যা তাদের ভুলে যাননি। তাদের মূল্যায়ন করে রাস্তা থেকে তুলে এনে বিভিন্ন দায়িত্ব দিয়ে আবার যুদ্ধে নামিয়ে দিচ্ছেন তিনি। এর উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত আমি মোহাম্মদ ইউনুছ। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে চিরকৃতজ্ঞ।’ নেতাকর্মী, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ী সবার প্রতি অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সনির্বন্ধ অনুরোধ, আমাকে যেন কেউ ফুল দিতে না আসেন। এতে আমি খুবই বিব্রতবোধ করব।’

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App