×

খবর

মোদাচ্ছের আলী

পুষ্টি গ্রহণে সমতা আনতে পারলে দেশ এগিয়ে যাবে

Icon

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : কমিউনিটি ক্লিনিক স্বাস্থ্য সহায়তা ট্রাস্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী বলেছেন, আমাদের দেশে ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের কম পুষ্টিকর খাবার খাওয়ানো হয়। তাই সবার আগে মায়েদের বোঝাতে হবে যে, ছেলেমেয়ে উভয়েই সমান। যদি এই জায়গায় সমতা আনা যায়, তাহলে গোটা দেশের চিত্র পাল্টে যাবে। গেøাবাল অ্যাফেয়ার্স কানাডার অর্থায়নে ‘রিয়েলাইজিং জেন্ডার ইকুয়্যালিটি, অ্যাটিটিউডিনাল চেঞ্জ অ্যান্ড ট্রান্সফরমেটিভ সিস্টেমস ইন নিউট্রিশন (রিয়্যাক্টস-ইন)’ নামে ৭ বছর মেয়াদি একটি প্রকল্প শুরু করেছে আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ। গতকাল সোমবার রাজধানীর গুলশানের একটি হোটেলে প্রকল্পটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন শেষে এসব কথা বলেন ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী। প্রকল্পটি সমন্বিতভাবে বাস্তবায়ন করছে আইএফপিআরআই-হার্ভেস্টপ্লাস, নিউট্রিশন ইন্টারন্যাশনাল এবং ম্যাকগিল ইউনিভার্সিটি। ঠাকুরগাঁও জেলার ৫টি উপজেলার ১২২টি গ্রামে এই প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে প্রান্তিক জনগোষ্ঠী বিশেষ করে নারী, কিশোর-কিশোরী এবং ৫ বছরের কম বয়সি শিশুসহ সরাসরি ৪ লাখ মানুষের পুষ্টি পরিস্থিতির উন্নয়ন, পুষ্টি সংক্রান্ত অধিকার প্রতিষ্ঠা এবং জেন্ডার সমতা আনার লক্ষ্যে কাজ করা হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে সরকারের বিভিন্ন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান এবং কমিউনিটির সঙ্গে কাজের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা শক্তিশালীকরণ, পুষ্টি গ্রহণে সমতা, কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য ও অধিকার এবং খাদ্য নিরপত্তা নিশ্চিত করা হবে।     প্রকল্প উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী বলেন, সারাদেশে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন করা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী চিন্তাভাবনার বাস্তব রূপ। প্রতিটি নাগরিককে স্বাস্থসেবা নিশ্চিত করতে হলে জনগণ ও সরকার যৌথভাবে কাজ করা ছাড়া বিকল্প কোনো উপায় নেই। কিন্তু কমিউনিটি ক্লিনিক যেভাবে চলা দরকার, সেভাবে চালাতে সক্ষম হচ্ছি না। আমি প্রত্যেককে অনুরোধ করব, যে যার এলাকার কমিউনিটি ক্লিনিকে গিয়ে দুর্বলতাগুলো পর্যবেক্ষণ করে আমাদের জানাবেন। আমরা সেটি ঠিক করার উদ্যোগ নেব। পাশাপাশি এনজিওগুলো যে ডাটা প্রকাশ করে, সেগুলো যেন নিজেদের সার্ভারে সংরক্ষণ করে এবং আমাদের জানায়। কেননা, সারা পৃথিবীতে ডাটা এখন অমূল্য সম্পদ। ওই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কমিউনিটি-বেজড হেলথ কেয়ারের লাইন ডিরেক্টর ডা. মো. কাইয়ুম তালুকদার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কমিউনিটি ক্লিনিক হেলথ সাপোর্ট ট্রাস্ট্রের ম্যানেজিং ডিরেক্টর এ কে এম নুরুন্নবী কবির, বাংলাদেশ ন্যাশনাল নিউট্রেশন কাউন্সিলের ডিরেক্টর জেনারেল ডা. মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ রাইস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের পরিচালক (গবেষণা) ড. মোহাম্মদ খালেকুজ্জামান এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনস্টিটিউট অব নিউট্রিশন অ্যান্ড ফুড সায়েন্সের পরিচালক প্রফেসর ড. খালেদা ইসলাম। প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আগত অতিথিদের স্বাগত জানিয়ে প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য তুলে ধরেন ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের সিনিয়র ডিরেক্টর-অপারেশন্স চন্দন জেড গোমেজ। কনসোর্টিয়াম প্রকল্পের চিফ অব পার্টি ড. আসরাত দিবাবা তোলোসা শুরুতেই প্রকল্পের কর্মকাণ্ড নিয়ে অতিথিদের সামনে একটি প্রেজেন্টেশন দেন। এছাড়া উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন হার্ভেস্ট প্লাসের কান্ট্রি কো-অর্ডিনেটর মো. ওয়াহিদুল আমিন, নিউট্রিশন ইন্টারন্যাশনালের কান্ট্রি ডিরেক্টর সায়কা সিরাজ।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App