×

খবর

হাসানাত আবদুল্লাহ ও সুদত্ত চাকমার বৈঠক

ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীকে মূলধারায় সম্পৃক্ত করা সম্ভব হয়েছে

Icon

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে ১৯৯৭ সালে শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রামে কয়েক দশকের সংঘাতের অবসান ঘটেছে। আজ পাহাড়ে শান্তি ও উন্নয়নের সুবাতাস বইছে। এর ফলে এ অঞ্চলে বসবাসরত ক্ষুদ্র  নৃ-গোষ্ঠীর জনগণকে জাতীয় উন্নয়নের মূলধারায় সম্পৃক্ত করা সম্ভব হয়েছে। ভারত প্রত্যাগত উপজাতীয় শরণার্থী প্রত্যাবাসন ও পুনর্বাসন এবং অভ্যন্তরীণ উদ্বাস্তু নির্দিষ্টকরণ ও পুনর্বাসন সম্পর্কিত টাস্কফোর্সের নবনিযুক্ত চেয়ারম্যান সুদত্ত চাকমা গতকাল সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে আবুল হাসানাত আবদুল্লাহর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে এলে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য গৌতম কুমার চাকমা উপস্থিত ছিলেন। আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ বলেন, শান্তিচুক্তির ৭২টি ধারার অধিকাংশ ধারাই সফলভাবে বাস্তবায়িত হয়েছে। বাকি ধারাগুলো বাস্তবায়নের কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে। পার্বত্য চট্টগ্রামে ভূমি বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য ডিজিটাল ভূমি জরিপ ও ব্যবস্থাপনা, সার্বিক জননিরাপত্তা ও পরিবেশের ভারসাম্যরক্ষাসহ এ অঞ্চলের মানুষের সার্বিক জীবন মানোন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা রাখছে। তিনি সাবেক সচিব সুদত্ত চাকমাকে একজন দক্ষ, কর্মঠ ও সৎ কর্মকর্তা হিসেবে উল্লেখ করে কমিটির সদস্য হিসেবে বিশেষ ভূমিকা রাখবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সুদত্ত চাকমা টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ লাভে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ এমপির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে টাস্কফোর্সের ২০ দফা কর্মসূচি বাস্তবায়নে কমিটির সহায়তা কামনা করেন। এছাড়া তিনি পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একজন সাবেক কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞান কমিটির সার্বিক কার্যক্রমে সহায়তা দেয়ার প্রতিশ্রæতি দেন। আগামী ৩০ এপ্রিল বেলা ১১টায় জাতীয় সংসদ কার্যালয়ে চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির পরবর্তী বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App