×

খবর

আটক ৭

চট্টগ্রামে সন্ত্রাসীদের হামলায় আহত সাংবাদিক

Icon

প্রকাশ: ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রাম অফিস : চট্টগ্রামে দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের সংঘর্ষের ভিডিও ধারণ করতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের স্টাফ ক্যামেরাপারসন সেলিম উল্লাহ। গত রবিবার রাত সোয়া ১০টার দিকে নগরীর মনসুরাবাদ এলাকায় সিএমপির গোয়েন্দা পুলিশ অফিসের কাছেই এ ঘটনাটি ঘটে। সেখানে স্থানীয় যুবলীগ নেতা সাদ্দাম হোসেন ও তার অনুসারীদের সঙ্গে প্রতিপক্ষের সংঘর্ষ বাধে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে। সাদ্দাম হোসেন চট্টগ্রাম নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির গ্রুপের অনুসারী বলে জানা গেছে। চট্টগ্রামের সাংবাদিক নেতাকর্মীরা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমলক শাস্তি দাবি করেছেন। হামলার শিকার সেলিমের ভাষ্য অনুযায়ী, ঘটনা চলাকালে তিনি ভিডিও ধারণ করছিলেন। এ সময় তার ওপর হামলা চালায় সাদ্দাম হোসেন এবং তার অনুসারীরা। তাকে মারতে মারতে পাশের একটি খালি জায়গায় নিয়ে যায়। সেখানে মারধর ও অকথ্য ভাষায় গালাগালির একপর্যায়ে সেলিমকে ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা চালায় সন্ত্রাসীরা। পরে স্থানীয়দের তৎপরতার মুখে পিছু হটে সাদ্দাম বাহিনীর সদস্যরা। ফলে প্রাণে রক্ষা পান সেলিম। সন্ত্রাসীরা তার ভিডিও ধারণ করা মোবাইলটি ভেঙে ফেলে। পরে চট্টগ্রাম মেডিকেলে জরুরি বিভাগে নিয়ে চিকিৎসা দেয়া হয় সেলিমকে। তার চোখে এবং পায়ের লিগামেন্টে আঘাত লেগেছে। হামলার ঘটনায় রাতেই মামলা হয় ডবলমুরিং থানায়। এরপর এসি ও ওসির নেতৃত্বে দ্রুত অভিযানে নামে পুলিশ। এ ঘটনায় গত সোমবার বিকাল পর্যন্ত সাতজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন চ্যানেল টুয়েন্টিফোর এর আঞ্চলিক সম্পাদক কামাল পারভেজ। তবে এ ঘটনার মূলহোতা সাদ্দাম হোসেন এখনো পলাতক। ডবলমুরিং থানার ওসি ফজলুল কাদের পাটোয়ারী জানান, সাদ্দামসহ পলাতক অন্যদেরও গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। সবাইকেই আইনের আওতায় আনা হবে। ঘটনাটি সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে। মনছুরাবাদ এলাকায় ফুটপাতে অবৈধ ফার্নিচার মার্কেট গড়ে তোলা সাদ্দাম কিশোর গ্যাংয়ের লিডার বলে জানান স্থানীয়রা। শুধু ফুটপাত নয় সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের বিশাল জায়গা দখলে নিয়ে গড়ে তুলেছেন ফার্নিচারের গোডাউন। তার এসব অপকর্মের বিরুদ্ধে কথা বলতেও ভয় পান স্থানীয়রা। এসব সন্ত্রাসীর দাপটের কাছে অসহায় স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরাও। তা প্রতিবাদ তো দূরের কথা উল্টো ভয়ে থাকেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App