×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

শেষের পাতা

পদ্মা সেতু

দুই বছরে টোল আদায় ১৬৪৮ কোটি টাকা

Icon

প্রকাশ: ২৬ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : গত দুই বছরে পদ্মা সেতু থেকে ১ হাজার ৬৪৮ কোটি ৭৬ লাখ ১৮ হাজার ৩০০ টাকা টোল আদায় হয়েছে। প্রতিদিন গড়ে ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা টোল আদায় হয়েছে। এ সময় সেতু দিয়ে ১ কোটি ২৭ লাখ ১৩ হাজার ২৭৫টি যানবাহন পারাপার হয়েছে।

এ তথ্য জানিয়েছেন সেতুর সাইট অফিসের অতিরিক্ত পরিচালক আমিরুল হায়দার চৌধুরী।

তিনি জানান, দেশের বৃহত্তম এই সেতু চালু হওয়ার পর থেকে গত ২৪ জুন রাত ১২টা পর্যন্ত ১ হাজার ৬৪৮ কোটি ৭৬ লাখ ১৮ হাজার ৩০০ টাকা টোল বাবদ আদায় করা হয়েছে। সেতুটি তৈরিতে ব্যবহৃত মালামালের ৯০ শতাংশই বিদেশ থেকে কেনা। অর্থ মন্ত্রণালয় যে টাকা বিনিয়োগ করেছে, তা বেশির ভাগই ঠিকাদার ও পরামর্শকদের বিল বাবদ ডলারে পরিশোধ করা হয়েছে।

জানা গেছে, ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি টাকা ব্যয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মিত হয়। ২০২২ সালের ২৫ জুন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন। এই সেতুটি উদ্বোধনের পর দেশের দক্ষিণ ও পশ্চিমাঞ্চলের ২৩ জেলার যোগাযোগব্যবস্থা বদলে যায়। এই সেতু দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।

২০২২-২৩ সালের তুলনায় ২০২৩-২৪ সালে পদ্মা সেতুতে যানবাহন চলাচল ও টোল আদায় অনেক বেড়েছে। পদ্মা সেতু চালুর পর থেকে দেশের দক্ষিণ এবং দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের যাতায়াত? সহজ হয়েছে। এখন ঢাকা থেকে পদ্মা সেতু হয়ে বরিশালে যাওয়া যাচ্ছে তিন থেকে চার ঘণ্টায়। খুলনায় চার ঘণ্টায় পৌঁছে যাচ্ছে মানুষ। বহু কাক্সিক্ষত এ সেতু তৈরিতে বিশ্বব্যাংকের সঙ্গে নানা জটিলতার পর দেশীয় অর্থায়নে পদ্মা সেতু নির্মাণ করা হয়। এই প্রকল্পের মূল দুই ঠিকাদার চীনের। পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ছিল দক্ষিণ কোরিয়ার।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App