×

শেষের পাতা

ভারি বৃষ্টি সিলেটে টিলাধস

স্বামী-স্ত্রীসহ একই পরিবারের ৩ জনের মৃত্যু

Icon

প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

স্বামী-স্ত্রীসহ একই পরিবারের ৩ জনের মৃত্যু

সিলেট অফিস : সিলেট নগরের মেজরটিলার চামেলীবাগ আবাসিক এলাকায় টিলার মাটি ধসে চাপা পড়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। মাটিচাপা পড়ার প্রায় ৬ ঘণ্টা পর গতকাল সোমবার বেলা ১২টার দিকে তাদের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নিহতরা হলেন- আগা করিম উদ্দিন (৩১), তার স্ত্রী শাম্মী আক্তার রুজি (২৫) ও তাদের শিশু সন্তান নাফজি তানিম। এছাড়া আগা মাহমুদ উদ্দিন, আগা বাবুল উদ্দিন, আগা বাচ্চু উদ্দিন ও আগা শফিক উদ্দিন নামে চার ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

এর আগে ভারি বৃষ্টিতে গতকাল সোমবার ভোর ৬টায় চামেলীবাগ এলাকার ২ নম্বর রোডের একটি টিলা ধসে ৮৯ নম্বর বাসার ওপর পড়ে। এতে এই বাসায় ভাড়া থাকা সাত সদস্য মাটির নিচে চাপা পড়েন। তিনজনকে তাৎক্ষণিক জীবিত উদ্ধার করা হয়। তাদের আহত অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অন্য তিনজনের সন্ধান মিলছিল না। গতকাল বেলা ১২টায় এই তিনজনের মরদেহ উদ্ধারের তথ্য নিশ্চিত করে সিলেট সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা সাজলু লস্কর বলেন, সকাল থেকে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস মাটিচাপা পড়াদের উদ্ধারে অভিযান শুরু করে। এরপর দুপুর ১২টার দিকে সেনাবাহিনী উদ্ধার অভিযানে নামে। সেনাবাহিনী অভিযান শুরুর কিছুক্ষণের পর নিখোঁজদের মরদেহ পাওয়া যায়।

চামেলীবাগের অবস্থান সিলেট সিটি করপোরেশনের ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডে। এর আগে সকালে এই ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মো. জাহাঙ্গীর আলম জানিয়েছিলেন, এই বাসায় দুই ভাই তাদের স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে থাকতেন। ভূমি ধসে ঘরের নিচে ৭ জন আটকা পড়েছিলেন। পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও এলাকাবাসী এসে এক ভাই, তার স্ত্রী ও তাদের সন্তানকে সুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করতে পেরেছিলেন। তবে আরেক ভাই, তার স্ত্রী ও ১ বছরের সন্তান নিখোঁজ ছিলেন। কাউন্সিলর জানান, প্রথমে বৃষ্টির কারণে উদ্ধার আভিযান কিছুটা ব্যাহত হয়। এছাড়া রাস্তা ছোট হওয়ার কারণে ফায়ার সার্ভিস ও সিটি করপোরেশনের গাড়ি ঢুকতে পারছিল না। তাই হাত দিয়েই উদ্ধার কার্যক্রম চালানো হয়। ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট কাজ করে। সঙ্গে পুলিশ, সিসিক কর্মী ও স্থানীয়রা সহযোগিতা করেছেন।

এছাড়া সোমবার দুপুরে যুক্তরাজ্য থেকে ফিরেই সরাসরি দুর্ঘটনাস্থলে যান সিলেট সিটি মেয়র আনোয়ারুজ্জামান চৌধুরী। এ সময় তিনি বলেন, দুর্ঘটনাস্থলে যাওয়ার গলিটি অত্যন্ত সরু। যে কারণে ফায়ার সার্ভিস ও সিসিকের গাড়ি বা মাটি কাটার যন্ত্র ঢুকানো যাচ্ছে না। উদ্ধার তৎপরতা ম্যানুয়ালি চালানো হচ্ছে।

ঘুম থেকে চিরঘুমে : গতকাল সোমবার ভোর থেকে বৃষ্টি হচ্ছিল সিলেটে। এমন বৃষ্টিময় সকালে ঘরের ভেতরে ঘুমিয়ে ছিলেন সবাই। এর মধ্যে বিকট শব্দে এস পড়ে ঘর লাগোয়া টিলাটি। টিলার মাটি ধসে একেবারে গুঁড়িয়ে যায় আধপাকা ঘরটি। আর তাতে চাপা পড়েন সাতজন। এর মধ্যে এক শিশুসহ তার বাবা-মায়ের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। সিলেটের পাহাড় টিলাগুলোর পাদদেশে ঘর বানিয়ে ঝুঁকিপূর্ণভাবে বসবাস করছে অনেক পরিবার। প্রতি বছরই বর্ষা মৌসুমে টিলা ধসে এসব ঘরের ওপর পড়ে হতাহতের ঘটনা ঘটে। গতকাল সকালে এ রকম আরেকটি দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল তিনজনের।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App