×

শেষের পাতা

পরিবেশমন্ত্রী

ইটভাটার বিরুদ্ধে ৪৪৩৬ মামলা হয়েছে

Icon

প্রকাশ: ১০ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী বলেছেন, পরিবেশ অধিদপ্তর ২০১৯ সালের জানুয়ারি থেকে চলতি বছরের এপ্রিল পর্যন্ত ইটভাটার বিরুদ্ধে দুই হাজার ৩৩৮টি অভিযান পরিচালনা করেছে। এ অভিযানে মোট চার হাজার ৪৩৬টি মামলা দায়ের করে ৯৮ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। আর জরিমানা আদায় করা হয়েছে ১১১ কোটি ৫০ লাখ ৩৩ হাজার ৯০০ টাকা।

গতকাল রবিবার জাতীয় সংসদে স্বতন্ত্র এমপি আবুল কালাম আজাদের নোটিসের জবাবে লিখিত বিবৃতিতে এসব তথ্য জানান তিনি। স্বতন্ত্র এমপি আমাতুল কিবরিয়া কেয়া চৌধুরীর নোটিসের জবাবে পরিবেশ, বন ও জলবায়ুমন্ত্রী জানান, দেশের তাপমাত্রা বাড়ার কারণ জানতে জলবায়ু ট্রাস্ট ফান্ডের মাধ্যমে একটি গবেষণা করা হচ্ছে, যা আগামী ডিসেম্বরে শেষ হবে। গবেষণা শেষ হলে বাংলাদেশে নগর পর্যায়ে তাপমাত্রা বাড়ার কারণ চিহ্নিত করা যাবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে ঢাকা ও ময়মনসিংহ শহরে তাপমাত্রা বাড়ার অবস্থা ও প্রভাব মূল্যায়ন করা যাবে এবং বৃষ্টিপাতের পরিবর্তনশীলতা নিরূপণ ও তা মোকাবিলায় প্রশমন কৌশল জানা যাবে।

রেলে দ্রুত নিয়োগ : জাতীয় সংসদে স্বতন্ত্র এমপি মাহমুদ হাসান সুমনের নোটিসের জবাবে দেয়া লিখিত বিবৃতিতে রেলপথমন্ত্রী জিল্লুল হাকিম জানিয়েছেন, স্টেশন মাস্টার চাকরি থেকে অব্যাহতি নিয়ে চলে যাওয়ায় শূন্য পদের সংখ্যা বেড়েছে। স্টেশন মাস্টারের জন্য এক হাজার ৯২৯টি মঞ্জুরি করা পদের বিপরীতে শূন্য পদ এক হাজার ১১৩টি এবং পয়েন্টম্যানে এক হাজার ৯২১ পদের মধ্যে শূন্য পদ ৭৮৩টি। ইতোমধ্যে ৪১৭টি স্টেশন মাস্টারের শূন্য পদে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়েছে। অতি দ্রুত নিয়োগ কার্যক্রম শেষ করা হবে।

তিনি বলেন, রেলওয়ের রাজস্ব বাড়ানোর জন্য অদূর ভবিষ্যতে আরো ২৬০টি ব্রডগেজ প্যাসেঞ্জার ক্যারেজ, ৪৬টি ব্রডগেজ লোকোমোটিভ, ৫০টি মিটারগেজ লোকোমোটিভ, ২৯০টি ব্রডগেজ বিএফসিটি ওয়াগন সংগ্রহ করার জন্য প্রকল্প অনুমোদনের কাজ চলমান রয়েছে। এসব পাওয়া গেলে নতুন ট্রেন চালু করা হবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App