×

শেষের পাতা

চার জেলায় বিভিন্ন মামলায় ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

Icon

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : চারটি মামলায় আদালত ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন। খুলনা, যশোর, রাজশাহী ও মৌলভীবাজারে গতকাল বুধবার আদালত এই রায় দেন। প্রতিনিধিদের পাঠানো সংবাদ- খুলনা ও যশোরে পৃথক দুটি হত্যা মামলায় ২ জনের মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল সকালে খুলনা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-৩ এর বিচারক আব্দুস ছালাম খান এবং বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মতিয়ার রহমান পৃথক এই রায় দেন। পিপি ফরিদ আহমেদ জানান, যৌতুকের দাবিতে ২০১১ সালের ২৫ আগস্ট রাতে খুলনা নগরীতে আসামি নুরুন্নবী তার স্ত্রী জোহরা খাতুনকে শ্বাসরোধে হত্যা করে। এরপর মরদেহ এবং তার শিশুপুত্রকে ঘরের মধ্যে তালাবদ্ধ করে রেখে পালিয়ে যায়। মৃত জোহরার ভাই সাদ্দাম হোসেন বাদী হয়ে ২৭ আগস্ট খুলনা থানায় হত্যা মামলা করেন। এ মামলায় ১৪ জন সাক্ষ্য দিয়েছেন। গতকাল ওই মামলায় রায়ে আসামি নুরুন্নবীকে মৃত্যুদণ্ড এবং ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন বিচারক। অন্যদিকে যশোরের অভয়নগরের কলেজছাত্র নুরুজ্জামান বাবু হত্যা মামলায় আসামি মো. রাজ্জাক পাটোয়ারীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মতিয়ার রহমান। আসামি রাজ্জাক পাটোয়ারী পলাতক রয়েছেন। ২০২০ সালের ১ জুন রাতে কলেজছাত্র নুরুজ্জামান বাবুকে শ্বাসরোধে হত্যা করে রাজ্জাক। নিহত নুরুজ্জামানের বাবা মো. ইমরান গাজী বাদি হয়ে ৪ জুন অভয়নগর থানায় মামলা করেন। এদিকে রাজশাহীতে হত্যা মামলায় দুই যুবককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল দুপুরে রাজশাহী দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মহিদুজ্জামান এ রায় দেন। পিপি এন্তাজুল হক বাবু এ তথ্য নিশ্চিত করেন। মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- নাটোরের লালপুর উপজেলার কাজিপাড়া এলাকার মৃত সানাউল্লাহর ছেলে আমিনুল ইসলাম ওরফে শাওন (৩০) ও একই উপজেলার বালিতিতা ইসলামপুর গ্রামের আকমল হোসেনের ছেলে মাসুদ রানা (২৬)। এছাড়া একই মামলায় মেহেদী হাসান রকি (২৫) নামে আরেক আসামিকে তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পিপি বাবু বলেন, খুনের পর জহুরুলের কাছে থাকা ২৮টি স্মার্টফোন ও নগদ ২৫ হাজার টাকা লুট করে আসামিরা পালিয়ে যান। তারা এসব স্মার্ট ফোন অন্য আসামি রকির কাছে রাখেন। পরে জহুরুলের ভাই বাদী হয়ে থানায় অজ্ঞাতদের অভিযুক্ত করে হত্যা মামলা করেন। পরে পুলিশের তদন্তে দুইজনের নাম পাওয়া যায়। পিপি বাবু আরো বলেন, এরপর পুলিশ মামলাটির তদন্ত করে আদালতে প্রতিবেদন জমা দেয়। পরে সাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালতের বিচারক দুজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন। এদিন রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। পরে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়। পাশাপাশি মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলার এক কিশোরীকে ধর্ষণ ও হত্যা করায় ২ জনকে ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত। গতকাল দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক মো. সোলায়মান এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন- জেলার রাজনগর থানার ছিক্কা গ্রামের মজমিলের ছেলে আবারক মিয়া ও দক্ষিণ কাসিমপুরের মৃত হামদু মিয়ার ছেলে জয়নাল মিয়া। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালতের পিপি নিখিল রঞ্জন দাশ জানান, রাশেদা বেগমকে গণধর্ষণ ও হত্যা করায় তার ভাই আব্দুল খালিদ বাদী হয়ে রাজনগর থানায় ২০১৮ সালের ২ জুন মামলা দায়ের করেন। অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় মামলার ২ আসামিকে মৃত্যুদণ্ডের রায় দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেকেকে ১ লাখ টাকা করে জরিমানাও করা হয়। রায় ঘোষণা শেষে আবারক মিয়া ও জয়নালকে কারাগারে পাঠানো হয়।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App