×

শেষের পাতা

পরিবেশমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী

স্যাটেলাইটে ইমেজ নিয়ে ঢাকায় গাছ লাগানো হবে

Icon

প্রকাশ: ১৩ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

 স্যাটেলাইটে ইমেজ নিয়ে  ঢাকায় গাছ লাগানো হবে
ঢাবি প্রতিনিধি : রাজধানী ঢাকার তাপমাত্রা কমাতে স্যাটেলাইটে ইমেজ তৈরির চেষ্টা চলছে। এগুলো বিশ্লেষণের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় স্থানে গাছ লাগানো হবে। এছাড়া নগরীর তাপমাত্রা সহনীয় পর্যায়ে রাখতে নগর বনায়ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী সাবের হোসেন চৌধুরী। গতকাল রবিবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে ঢাকা উত্তর ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, সি ফোরটি ও আইসিএলইআই এর যৌথ উদ্যোগে ‘ক্লাইমেট অ্যাকশন প্ল্যান’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। সাবের হোসেন চৌধুরী বলেন, ঢাকাকে বাসযোগ্য রাখতে আমাদের অন্তত কিছু স্থানকে সবুজায়ন করতে হবে। আমরা যখন রমনায় যাই অথবা ব্যোটানিক্যাল গার্ডেনে যাই সেখানে অন্যান্য স্থানের চেয়ে ৩-৪ ডিগ্রি তাপমাত্রা কম থাকে। সে জন্যই আমাদের স্যাটেলাইট ইমেজ তৈরি করে গাছ লাগানোর স্থান নির্ধারণ করতে হচ্ছে। তাই নগর বনায়ন ও জলাভূমি নিয়ে আমরা পরিবেশ মন্ত্রণালয় ঢাকার দুই মেয়রকে নিয়ে আলোচনায় বসে কাজ করব। উন্নত বিশ্বের উদ্দেশে তিনি বলেন, বাংলাদেশের কার্বন নিঃসরণ ০.৪৬ শতাংশ। সারা বিশ্বে যে কার্বন নিঃসরণ সেটাতো আমরা করিনি। এটার দায় তো আমাদের নেয়ার কথা না। কিন্তু কী করব? আমরা স্বল্পোন্নত দেশ হওয়ায় আমাদের ওপর যা খুশি তা চাপিয়ে দিতে পারে। আজকে যদি জলবায়ু পরিবর্তনে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কারণ কোনোভাবে বাংলাদেশের মতো স্বল্পোন্নত দেশ হতো তাহলে একটার পর একটা নিষেধাজ্ঞা দিত। পরিবেশমন্ত্রী আরো বলেন, পরিচ্ছন্ন, সবুজ ও প্রাণবন্ত ঢাকা গড়তে জলবায়ু কর্মপরিকল্পনা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ঢাকায় দুটি সিটি করপোরেশন থাকলেও এক ঢাকা হিসেবে এই কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন করা হবে। দুই কোটি মানুষের নগরীতে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব কমাতে দুই সিটি করপোরেশনের এক ঢাকা ঘোষণা সময়োপযোগী সিদ্ধান্ত। সাবের চৌধুরী আরো বলেন, ঢাকা ক্লাইমেট অ্যাকশন প্ল্যান (ক্যাপ) চালুর মাধ্যমে পরিবেশ টেকসই করার জন্য রূপান্তরমূলক যাত্রা শুরু হয়েছে। সহযোগিতামূলক প্রচেষ্টার মাধ্যমে ক্যাপ ঢাকার বাসিন্দাদের জীবনযাত্রার মান উন্নত করার পাশাপাশি জলবায়ু পরিবর্তন জনিত চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার চেষ্টা করবে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, আজকে আমরা বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে পারছি কারণ আমরা পরিকল্পনা করি এবং তা বাস্তবায়ন করি। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যা কিছু নিয়েই পরিকল্পনা করা হয় তা যেন পরিবেশবান্ধব হয়। তাই আমরা সে অনুযায়ী কাজ করছি। বাংলাদেশে সমস্যা যেমন ঢাকাকে কেন্দ্র করেই হচ্ছে সমাধানও ঢাকা থেকেই হবে। এ সময় ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেভাবে সারাবিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব মোকাবিলায় নেতৃত্ব দিচ্ছেন তার নেতৃত্ব অনুসরণ করে এখন আর বসে না থেকে পুরো ঢাকা শহরকে জলবায়ু পরিবর্তনের জন্য প্রস্তুত করব। আমরা ঢাকা সিটি করপোরেশন পরিবেশ রক্ষার জন্য আলাদা বাজেট করব এবং সবার সঙ্গে একযোগে কাজ করে যাব। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, ব্রিটিশ হাইকমিশনের ডেপুটি হাইকমিশনার ম্যাট ক্যানেল, সি-ফোরটির নির্বাহী পরিচালক মার্ক ওয়াটস, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র জায়েদা খাতুনসহ সরকারী কর্মকর্তা, পরিবেশ বিশেষজ্ঞ, শিক্ষাবিদ ও বিভিন্ন সংস্থার সদস্যরা।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App