×

শেষের পাতা

নোয়াখালীতে আ.লীগের সংবাদ সম্মেলন

দল থেকে একরামকে বহিষ্কার ও এমপি পদ স্থগিত দাবি

Icon

প্রকাশ: ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

নোয়াখালী প্রতিনিধি : সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর অন্যায় আচরণ ও দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করায় দল থেকে বহিষ্কার ও তার সংসদ সদস্য পদ স্থগিতের দাবি জানিয়েছে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগ। গতকাল মঙ্গলবার সকালে নোয়াখালী প্রেস ক্লাব অডিটোরিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানানো হয়। সংবাদ সম্মেলনে সূবর্ণচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এইচএম খায়রুল আনাম চৌধুরী সেলিম, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদ উল্যা খান সোহেল, সিনিয়র সহসভাপতি অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহিন, জাতীয় নেতা আবদুল মালেক উকিলের জ্যৈষ্ঠ পুত্র গোলাম মহিউদ্দিন লাতু, সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও আবদুল মালেক উকিলের কনিষ্ঠ পুত্র বাহার উদ্দিন খেলন, সাধারণ সম্পাদক হানিফ চৌধুরী, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান নাছেরসহ জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ, অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা বক্তব্য রাখেন। সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা বলেন, সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে স্থানীয় সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী তার ছেলে আতাহার ইশরাক সাবাব চৌধুরীকে পাশ্ববর্তী কবিরহাট উপজেলা থেকে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার কয়েকদিন আগে সুবর্ণচর উপজেলায় ভোটার স্থানান্তর করেন। এরপর সেখানে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এইচএম খায়রুল আনাম চৌধুরী সেলিমের বিরুদ্ধে প্রার্থী করিয়ে দলের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছেন। একই সঙ্গে একরামুল করিম চৌধুরী প্রভাব খাটিয়ে প্রশাসন ও সন্ত্রাসীদের ব্যবহার করে অরাজনৈতিক বক্তব্য দিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের মাধ্যমে ছেলেকে ভোট না দিলে উন্নয়ন করবেন না বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন। জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র শহিদ উল্যা খান সোহেল বলেন, নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ অমান্য করে সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে তার ছেলেকে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির বিরুদ্ধে প্রার্থী করিয়েছেন এবং ছেলে জেতানোর জন্য সুবর্ণচরে বহিরাগত সন্ত্রাসীদের এনে অবৈধ অস্ত্রের মহড়া দেয়াচ্ছেন। এছাড়া অরাজনৈতিক বক্তব্য দিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের মাধ্যমে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতিসহ জেলার নেতাদের হেয় করার পাঁয়তারা করছেন। একরামুল করিম চৌধুরীর ওইসব বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে অবিলম্বে তার সংসদ সদস্য পদ স্থগিত ও দল থেকে বহিষ্কারের দাবি জানান। সুবর্ণচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যক্ষ এইচএম খায়রুল আনাম চৌধুরী সেলিম বলেন, একরামুল করিম চৌধুরী নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর থেকে নিজের ছেলে ভোট না দিলে এলাকার উন্নয়ন বন্ধ করে দেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়ে ভোটের মাঠে প্রভাব বিস্তার করে আসছেন এবং যারা এমপির অপরাজনীতি ও হুমকি ধমকির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে আমার পক্ষে ভোট করছেন, সেই সব নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালিয়ে অমানুষিক নির্যাতন করছে। এসব ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করলেও এমপির নির্দেশে থানার ওসি কোনো মামলা রেকর্ড করছেন না এবং আসামিদের ধরছেন না। এদিকে বিকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের অডিটোরিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগ বিশেষ বর্ধিত সভার আয়োজন করে। ওই বিশেষ বর্ধিত সভায় জেলা, সদর উপজেলা, নোয়াখালী পৌরসভা ও সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতারা এবং অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের জেলা পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। ওই সভায়ও নোয়াখালী-৪ আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর অন্যায় আচরণ ও দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করায় দল থেকে বহিষ্কার চেয়ে একরামুল করিম চৌধুরীর বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা ও তার সংসদ সদস্য পদ স্থগিতের দাবি জানানো হয়।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App