×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

প্রথম পাতা

রায়পুরা

রেললাইনে ৬ জনের মৃত্যু নিয়ে রহস্য

Icon

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

রায়পুরা (নরসিংদী) প্রতিনিধি : রায়পুরায় পৃথক ট্রেনে কাটা পড়ে ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহত সবাই পুরুষ। তাদের বয়স আনুমানিক ১৫-২৫ বছর। এদের মধ্যে একজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। একসঙ্গে এতজনের মৃত্যু নিয়ে তৈরি হয়েছে রহস্য। গতকাল সোমবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী মেইল ট্রেনে কাটা পড়ে পাঁচজন ও দুপুর পৌনে ১২টার দিকে কালনী এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে আরো একজনের মৃত্যু হয়। রায়পুরা উপজেলার মেথিকান্দার রেলগেট এলাকার দুই কিলোমিটার অদূরে পলাশতলী ইউনিয়নের খাকচর কমলপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

খবর পেয়ে রেলপুলিশ, পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই), পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি), রায়পুরা ও জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসে মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে কাজ করেন। পরিচয় শনাক্তে মরদেহের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সংগ্রহ করে পিবিআই।

রেলওয়ে সূত্রে জানা যায়, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে রায়পুরা উপজেলার মেথিকান্দার রেলগেট এলাকায় পলাশতলী ইউনিয়নের কমলপুরে রেললাইনের পাশে ছিন্নভিন্ন পাঁচটি মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। পরে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পরে রেলপুলিশ, পিবিআই, রায়পুরা ও জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে এসে মরদেহ উদ্ধারে কাজ শুরু করেন। তবে তাৎক্ষণিকভাবে এ ঘটনার কারণ জানাতে পারেনি পুলিশ।

অন্যদিকে দুপুর পৌনে ১২টার দিকে এ দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাওয়ার সময় মেথিকান্দার রেলগেট এলাকায় ঢাকা থেকে সিলেটগামী কালনী এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে একজন মারা যান। ট্রেনে কাটা পড়ে তার মরদেহ একেবারে ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। নিহত ওই ব্যক্তির নাম পরিমল সূত্রধর (৬০)। তিনি শিবপুরের যোশর এলাকার সুরেন্দ্র সূত্রধরের ছেলে।

নিহতের ছেলে বিপুল সূত্রধর জানান, রোগী দেখার জন্য সকালে রায়পুরায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন তার বাবা। সেখান থেকে কীভাবে তিনি মেতিকান্দা স্টেশন এলাকায় এসেছেন তা তিনি জানেন না।

তবে স্থানীয় লোকজন, পুলিশ ও রেলওয়ের লোকজনের সঙ্গে কথা বলে বাকি পাঁচজনের মৃত্যুর কারণ জানা যায়নি। সিসিটিভির ফুটেজে দেখা যায়, ট্রেনটির ছাদে কয়েকজন যাত্রী ছিলেন। তারাই নিহত হয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত হতে পারেনি রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শী দেলোয়ার হোসেন বলেন, সকালে রেললাইনের পাশে লোকজনের ভিড় দেখে এগিয়ে আসি। এসে দেখি রেললাইনে মানুষের শরীরের বিচ্ছিন্ন অংশ ও রক্ত ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে। একটু সামনে এগোতেই একটি মরদেহ দেখা যায়। পরে আরো সামনে গেলে চারটি মরদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App