×

প্রথম পাতা

অসাধারণ খেলেছে রোহিত বাহিনী

Icon

প্রকাশ: ২৮ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

অসাধারণ খেলেছে  রোহিত বাহিনী

গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে গতকাল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অসাধারণ খেলেছে টিম ইন্ডিয়া। নেতৃত্বে নান্দনিকতার পরিচয় দিয়েছেন রোহিত শর্মা। ব্যাট হাতে ৩৯ বলে ৫৭ রানের ইনিংস খেলার পর ইংলিশদের ব্যাটিংয়ে বোলার পরিবর্তন থেকে শুরু করে ফিল্ডিং সাজানোয় মুন্সিয়ানার পরিচয় দিয়েছেন তিনি। পারফেক্ট সময়ে অক্ষর প্যাটেলের হাতে বল তুলে দিয়েছেন রোহিত। ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছেন মূলত অক্ষর প্যাটেল।

বৃষ্টির পর উইকেট স্লো হয়ে গিয়েছিল। এ পিচে ১৭০ রান অন্য সময়ের ২০০ রানের কাছাকাছি। ইংলিশ স্পিনার আদিল রশিদ যখন বল করছিলেন, তখন বল বেশ টার্ন করছিল। তখনই বোঝা গেছে ভারতীয় স্পিনাররাও এ পিচে ফায়দা লুটতে পারবেন। হয়েছেও তা-ই। অক্ষর প্যাটেল এবং কুলদ্বীপ দুজনে মিলে তুলে নিয়েছেন ৬ উইকেট। ভারতীয় বোলাররা যেমন নিয়ন্ত্রিত বোলিং করেছেন তেমনি ব্যাটাররা উইকেটে এসে রানের চাকা সচল রেখেছেন। পরিকল্পনার সুফল পেয়েছে টিম ইন্ডিয়া। আগামীকাল ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা ফাইনালটি বেশ জম্পেশ হবে।

ত্রিনিদাদের ব্রায়ান লারা স্টেডিয়ামে গতকাল বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালে যোগ্যতর দল হিসেবে আফগানদের হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। এর আগে ৭ বার সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিয়েছিল প্রোটিয়ারা। গতকাল অতীতের মতো ভুল করেনি মার্করাম বাহিনী।

জাতীয় দল পর্যায়ে না হলেও বয়সভিত্তিক পর্যায়ে চ্যাম্পিয়নের তকমা আগেই পেয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ২০১৪ সালে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা উঁচিয়ে ধরেছে তারা। তখন সেই দলটির নেতৃত্বে ছিলেন এই মার্করামই। এবার তার কাঁধে ভর করেই নতুন করে স্বপ্ন বুনছে প্রোটিয়ারা। অপেক্ষা কেবল আর একটি জয়ের। গতকাল সেমিফাইনালে খুব একটা ঝামেলায় পড়তে হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকাকে। তাদের পেস তোপের সামনে মাত্র ৫৬ রানেই গুটিয়ে যায় আফগানিস্তান। তাড়া করতে নেমে ৬৭ বল ও ৯ উইকেট হাতে রেখেই জিতে যায় প্রোটিয়ারা।

টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ফাস্ট বোলার কাগিসো রাবাদা ও মার্কো জানসেনের তোপে পাওয়ারপ্লের ৬ ওভারে মাত্র ২৮ রানে ৫ উইকেট হারায় আফগানিস্তান। পাওয়ারপ্লের পর আক্রমণে এসে আরেক ফাস্ট বোলার আনরিখ নরকিয়া নেন ২ উইকেট। আর বাঁহাতি লেগস্পিনার তাব্রাইজ শামসি ৩ উইকেট নিয়ে আফগানিস্তানের ইনিংস পরিণত করেন ধ্বংসযজ্ঞে। প্রোটিয়া বোলাররা দারুণ বল করেছেন।

প্রোটিয়া পেস তোপের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি আফগান ব্যাটাররা। সর্বোচ্চ ১৩ রান এসেছে অতিরিক্ত থেকে। দুই অঙ্ক ছুঁতে পেরেছেন কেবল আজমতউল্লাহ ওমরজাই (১০)। এছাড়া বাকি সব ব্যাটার আউট হয়েছেন এক অঙ্কের ঘরে থেকে। আফগানিস্তানের ব্যাটিংয়ের প্রাণভ্রমরা হলেন রহমানউল্লাহ গুরবাজ ও ইব্রাহিম জাদরান। এ জুটি এবার বিশ্বকাপে দারুণ পারফরম্যান্স করলেও গতকাল প্রোটিয়া বোলারদের পরিকল্পনামাফিক বোলিংয়ের সামনে কোমর সোজা করে দাঁড়াতে পারেনি তারা। গুরবাজকে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে ফেরত পাঠান মার্কো জানসেন। অন্য ওপেনার ইব্রাহিম জাদরানকে ২ রানে আউট করে রাবাদা। ২০ রানে ৪ উইকেট হারিয়েই ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় আফগানরা। প্রোটিয়া পেসের সামনে দাঁড়াতে পারেনি আফগান ব্যাটাররা। বিশেষ করে মার্কো জানসেন, কাগিসো রাবাদা ও আনরিখ নরকিয়া অসাধারণ বল করেছে। আফগানদের যে ১০টি উইকেটের পতন ঘটেছে তার ৭টি তুলে নিয়েছেন এ তিন পেসার। মার্কো জানসেন ৩ ওভার বল করে ১৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছেন। রাবাদা ১৪ রানে এবং নরকিয়া ৭ রানে ২টি করে উইকেট তুলে নেন। পেসারদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তাব্রাইজ শামসি আফগানদের ৫৬ রানে গুটিয়ে দিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। ১.৫ ওভারে ৬ রান দিয়ে ৩ উইকেট তুলে নিয়েছেন তিনি।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App