×

প্রথম পাতা

লড়াই করে হার মানল টাইগাররা

Icon

প্রকাশ: ১১ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

লড়াই করে  হার মানল টাইগাররা

কাগজ প্রতিবেদক : নিউইর্য়কের নাসাউ কাউন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে গতকাল দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে সমানে সমান লড়াই করে শেষ পর্যন্ত ৪ রানে হেরেছে টাইগাররা। শেষ ওভারে লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের ম্যাচ জিততে প্রয়োজন ছিল ১১ রানের। ৪ বলে ৫ রান নিলে ২ বলে ৬ রানের দরকার এমন সময় কেশব মহারাজের বলে উড়িয়ে মারেন মাহমুদউল্লাহ। বাউন্ডারি কাছে লাফিয়ে সেই বল লুফে নেন প্রোটিয়া অধিনায়ক এইডেন মার্করাম। দক্ষিণ আফ্রিকার ১১৩ রানের জবাবে খেলতে নেমে গতকাল ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ১০৯ রান সংগ্রহ করে হাথুরুসিংহের শিষ্যরা। গতকাল টাইগাররা ৯.৫ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ৫০ রান তুলে চাপে পড়ে গেলে পঞ্চম উইকেটে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে নিয়ে ৪৪ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন তাওহিদ হৃদয়। ২ চার এবং ২ ছক্কার সাহয্যে হৃদয় ৪৩ বলে ৩৭ রান করে আউট হলে ১৭ বলে ম্যাচ জিততে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২০ রানের। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২৭ বলে ২০ রান করে আউট হলে টাইগারদের জয়ের স্বপ্ন ধুলিসাৎ হয়ে যায়। ৪৪ বলে ৪৬ রানের ইনিংস খেলায় ম্যাচসেরা হয়েছেন হেনরিখ ক্লাসেন। আগামী বৃহস্পতিবার লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা তাদের তৃতীয় ম্যাচে সেন্ট ভিনসেন্টে নেদারল্যান্ডসের মোকাবিলা করবে।

এর আগে তানজিম সাকিব এবং তাসকিন আহমেদের বিধ্বংসী বোলিংয়ে ২৩ রানে ৪ উইকেট হারানোর পর ম্যাচে ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ পর্যন্ত ৬ উইকেট হারিয়ে ২০ শেষে ১১৩ রান সংগ্রহ করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। গতকাল প্রাথমিক ধাক্কা সামলিয়ে পঞ্চম উইকেট জুটিতে ডেভিড মিলার এবং হেনরিক ক্লাসেন ৭৯ যোগ করেন। ১১তম ওভারে বল করতে এসেই ডেভিড মিলারের উইকেট নিতে পারতেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তার বলে ব্যাটের কানায় লাগিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন মিলার। কিন্তু লিটন দাস ছিলেন পুরোপুরি অপ্রস্তুত। তিনি ক্যাচটি তালুবন্দি করতে পারেননি। পারলে, প্রোটিয়ারা আরো অনেক বেশি চাপে পড়ে যেত।

টস হেরে ফিল্ডিংয়ে নেমে পাওয়ারপ্লেতেই প্রোটিয়াদের টপ অর্ডার গুঁড়িয়ে দিয়েছেন দুই পেসার তানজিম সাকিব ও তাসকিন আহমেদ। এরই সঙ্গে গতকাল লজ্জার নজির গড়েছে প্রোটিয়ারা । পাওয়ারপ্লের ৬ ওভার শেষে প্রোটিয়া বাহিনীর সংগ্রহ দাঁড়ায় ৪ উইকেটে ২৫ রান। যা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের পাওয়ারপ্লের ইতিহাসে এটি তাদের তৃতীয় সর্বনি¤œ রানের রেকর্ড।

এর আগে নিজেদের সর্বশেষ ম্যাচেই সর্বনি¤œ রানের রেকর্ড গড়েছিল মার্করামরা। নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে পাওয়ারপ্লেতে ৪ উইকেটের বিনিময়ে ১৬ রান তুলেছিল তারা। পাওয়ারপ্লেতে নিজেদের দ্বিতীয় সর্বনি¤œ রানের রেকর্ডটি ২০২২ বিশ্বকাপে পার্থে ভারতের বিপক্ষে। সেবার ৩ উইকেটে ২৪ রান তোলে প্রোটিয়া বাহিনী।

এ ছাড়া চলতি বিশ্বকাপেই নিজেদের প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২ উইকেটের বিনিময়ে ২৭ রান তুলতে পেরেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। মজার বিষয় হচ্ছে, পাওয়ারপ্লেতে নিজেদের সর্বনি¤œ রানের তিনটিই চলতি টুর্নামেন্টে গ্রুপপর্বের তিন ম্যাচে হয়েছে।

তবে পাওয়ার প্লের পর ছন্দ হারায় টাইগারদের বোলিং। বিশেষ করে স্পিন বোলিংয়ে তেমন প্রভাব ফেলতে পারেননি কেউ। ৩ ওভারে ২৮ রান দিয়ে সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা করেন রিশাদ হোসেন। সাকিব আল হাসান কিংবা মাহমুদউল্লাহরাও পারেননি প্রভাব ফেলতে।

আর সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে ক্লাসেন ও মিলার উইকেটে থিতু হন। ধীরে ধীরে হাত খুলতেও শুরু করেন দুজনেই। আর তাতে নতুন করে আর কোনো উইকেট না হারিয়েই ১০০-এর দিকে ছুটে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৪৪ বলে ৪৬ রান করা ক্লাসেনকে বোল্ড করেন তাসকিন আহমেদ। এর পর ডেভিড মিলারকে বোল্ড করেন লেগ স্পিনার রিশাদ হোসেন। এরপর আর বেশি দূর এগোতে পারেনি প্রোটিয়ারা। ১১৩ রানে থামে তাদের ইনিংস।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App