×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

প্রথম পাতা

লঙ্কা থেকে এগিয়ে প্রোটিয়ারা

Icon

প্রকাশ: ০৩ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

লঙ্কা থেকে এগিয়ে প্রোটিয়ারা

যুক্তরাষ্ট্র-কানাডা ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপের নবম আসরের পর্দা উঠেছে। জয় দিয়ে শুরু করেছে স্বাগতিকরা। আজ বার্বাডোজে এবং নিউইর্য়কে দুটি ম্যাচ রয়েছে। ভোর সাড়ে ৬টায় বার্বাডোজে নামিবিয়ার মোকাবিলা করবে ওমান। রাত সাড়ে ৮টায় নিউইর্য়কে মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকা ও শ্রীলঙ্কা।

প্রোটিয়ারা প্রতিটি বিশ্বকাপেই ভালো খেলে কিন্তু সেমিফাইনালে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলে। এ বিশ্বকাপেও দক্ষিণ আফ্রিকা অন্যতম ফেভারিট। শক্তির বিচারে লঙ্কানদের চেয়ে প্রোটিয়ারা এগিয়ে। দলটিতে বেশ কয়েকজন জাঁদরেল ক্রিকেটার রয়েছে যারা একাই ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দিতে পারে। এডেন মার্করাম, হেনরিখ ক্লাসেন, কুইন্টন ডি কক, ডেভিড মিলার, জেরাল্ড কোয়েটজি ও রিজা হেনড্রিকসের সমন্বয়ে গড়া দলটির ব্যাটিং লাইনআপ যথেষ্ট শক্তিশালী।

শ্রীলঙ্কার ব্যাটিং লাইনআপে তেমন গভীরতা নেই। ঘুরে ফিরে কুশল মেন্ডিস ও দাসুন শানাকার ওপর নির্ভরশীল। স্পিন আক্রমণে দক্ষিণ আফ্রিকার চেয়ে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা। তাদের বোলিং আক্রমণে বৈচিত্র্য রয়েছে। প্রোটিয়াদের তাব্রাইজ শামসি এবং কেশব মহারাজ স্পিনে কম যান না।

আমরা ওয়ানডে বিশ্বকাপে দেখেছি রান তাড়া করতে গিয়ে খেই হারিয়ে ফেলেছিল প্রোটিয়ারা। আজ শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে মার্করাম বাহিনী আগে ব্যাট করে ১৮০ থেকে ১৯০ রান করতে পারে তা হলে ম্যাচে তাদের জয় নিশ্চিত। এই রান তাড়া করে ম্যাচ বের করতে পারবে না সিংহলিজরা। প্রোটিয়া পেস আক্রমণ যথেষ্ট শক্তিশালী। পেস আক্রমণে কাগিসো রাবাদার সঙ্গে যারা আছেন তারা দুর্দান্ত বোলিং করেন। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উইকেটে কাটার এবং স্লোয়ার বেশ ধরছে, তাই বলা যায় প্রোটিয়া বোলাররা ফায়দা লুটতে পারবে।

দু-তিনজনের ওপর নির্ভরশীল লঙ্কান ব্যাটিং লাইনআপ যদি আগে ব্যাট করে ১৮০ থেকে ১৯০ রান সংগ্রহ করতে পারে তাহলে সেই রান তাড়া করে প্রোটিয়াদের জন্য ম্যাচ বের করে আনা কষ্টকর হবে।

বার্বাডোজে সকাল সাড়ে ৬টায় নামিবিয়া খেলবে ওমানের বিপক্ষে। এই ম্যাচে আমি নামিবিয়াকে এগিয়ে রাখব। সম্প্রতি গেরহার্ড এরাসমাস বাহিনী ভালো ক্রিকেট খেলছে। তারা নেদারল্যান্ডস ও নেপালের বিপক্ষে জয় পেয়েছে। দলটিতে কয়েকজন প্রতিভাবান খেলোয়াড় রয়েছে। ওমানের চেয়ে তিন বিভাগেই এগিয়ে নামিবিয়া। তবে ওমানকে হালকা করে দেখার সুযোগ নেই। তারা যে কোনো সময় ঘুরে দাঁড়াতে পারে। ওমান দলটি নেপাল এবং আরব আমিরাতের মতো দলের বিপক্ষে ভালো খেললেও এর উপরের দলগুলোর বিপক্ষে আর কুলিয়ে উঠতে পারে না। ওমানের হারানোর কিছু নেই। তারা যদি ফেয়ারনেস ক্রিকেট খেলতে পারে তাহলে তারা জয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে পারবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App