×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

মেলা

রেস্তোরাঁয় টেবিল পরিষ্কার করতেন সুনীলের বাবা

Icon

প্রকাশ: ২২ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

রেস্তোরাঁয় টেবিল পরিষ্কার করতেন সুনীলের বাবা

বলিউডের এক সময়ের জনপ্রিয় অভিনেতা সুনীল শেট্টি। অভিনয় জগতে তিন দশক কাটিয়ে ফেলেছেন তিনি। তবে এ সাফল্যের পেছনে রয়েছে তার বাবার বিশেষ ভূমিকা। এক রিয়্যালিটি শোয়ের মঞ্চে নিজের বাবা বীরপ্পা শেট্টির লড়াইয়ের কথা বলেন সুনীল। মাত্র ৯ বছর বয়সে ম্যাঙ্গালোরের বাড়ি থেকে পালিয়ে যান সুনীলের বাবা। মুম্বাইয়ে গিয়ে শুরু হয় জীবনের লড়াই। মায়ানগরীতে দক্ষিণ ভারতীয় খাবারের একটি রেস্তোরাঁয় কাজ জোগাড় করেন বীরপ্পা। সুনীল বলেন, ‘বাবার কাজ ছিল টেবিল পরিষ্কার করা।

তখন খুবই ছোট বাবা। দিনে চারবার করে রেস্তোরাঁর সব টেবিল পরিষ্কার করতে হতো।’ কিন্তু এই লড়াই থেকেই একদিন ঘুরে দাঁড়ান সুনীলের বাবা। কিনে নেন তিনটি বাড়ি। এর পেছনেও রয়েছে বড় ঘটনা। সুনীল বলেন, ‘বাবা যেখানে কাজ করতেন সেই সংস্থার মালিক তিনটি বাড়ি কিনেছিলেন।

সেই তিনটি বাড়ির দেখাশোনার ভার আসে বাবার কাছে। সেই মালিক কাজ থেকে অবসর নেয়ার পরে, বাবা ওই তিনটি বাড়ি কিনে নেন।’

সেই তিনটি বাড়ি এখনো আছে বলে জানান সুনীল। বিনয়ী মানুষ হিসেবে পরিচিত ছিলেন সুনীলের বাবা। কিন্তু পরিবারের বিরুদ্ধে কেউ কিছু বললেই তার অন্য রূপ! সুনীলের কথায়, ‘বাবা খুব বিনয়ী ছিলেন। কিন্তু পরিবারের কেউ ক্ষতি করতে চাইলে বীরপ্পা সিংহে পরিণত হতেন।’

সুনীলের বাবা নাকি বলতেন, ‘সকলকে বেচে দেব, গ্রামে চলে যাব। কিন্তু অবিচার সহ্য করব না।’ ২০১৭ সালে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে মৃত্যু হয় বীরপ্পা শেট্টির। উল্লেখ্য, আগামী ‘ওয়েলকাম টু দ্য জাঙ্গল’ ও ‘হেরা ফেরি ৩’ ছবিতে দেখা মিলবে সুনীলের।

- মেলা ডেস্ক

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App