×

এই জনপদ

চান্দিনা

একাধিক মামলার আসামি যুবলীগ নেতাকে হত্যা

Icon

প্রকাশ: ০৬ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি : চান্দিনায় শত্রæতার জেরে অস্ত্র মামলাসহ একাধিক মামলার আসামি যুবলীগ নেতা তানভীর আহমেদ ভূঁইয়াকে (৩২) হত্যা করা হয়েছে। এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর দাবি, তাকে ধর্ষণের চেষ্টাকালে তার স্বামী পিটিয়ে হত্যা করে তানভীরকে। তবে এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে ধূম্রজাল সৃষ্টি হয়েছে। গত মঙ্গলবার উপজেলার বাড়েরা ইউনিয়নের গড়ামারা গ্রামের আক্কাস আলীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূর স্বামী সেলিম মিয়াকে (৩৫) আটক করে পুলিশ। নিহত তানভীর আহমেদ ভূঁইয়া একই ইউনিয়নের গনিপুর গ্রামের বাবুল ভূইয়ার ছেলে। তিনি বাড়েরা ইউনিয়ন যুবলীগ কমিটির সহ-সভাপতি।

পুলিশ জানায়, হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে গতকাল বুধবার সকালে গড়ামারা গ্রামের গিয়ে নিহত তানভীরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ঘটনাস্থল যেখানে সেই এলাকাটি খুবই ঘনবসতিপূর্ণ। তারপরও এ হত্যাকাণ্ড নিয়ে স্থানীয় কেউ কিছুই জানে না বলে জানান। নিহত তানভীরের বিরুদ্ধে অস্ত্র মামলাসহ একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশ। এদিকে রাবেয়া নামে এক অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ জানান, রাত ২টায় তানভীর তার ঘরে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় তার স্বামীর সঙ্গে ধস্তাধস্তি ও মারধরের ঘটনা ঘটে। তানভীরকে পেটানোর পর তানভীর অচেতন হয়ে পড়ে যান। একপর্যায়ে তার মৃত্যু ঘটে।

নিহত তানভীরের মা নিলুফা বেগম বলেন, আমার ছেলেকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে। ওই মহিলা যা বলছেন তা মোটেও সত্য না।

বাড়েরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আহসান হাবীব ভূঁইয়া বলেন, হত্যাকাণ্ডটি রহস্যজনক। ঘটনাস্থল এতই ঘনবসতিপূর্ণ যে, ওই বাড়িতে কোনো উঠান নেই। বাড়ির বা পার্শ্ববর্তী মানুষ ঘটনাটি জানবে না সেটা হতে পারে না। স্থানীয় কোনো মানুষ মুখ খুলছে না।

চান্দিনা থানার এসআই সুজন দত্ত ভোরের কাগজকে বলেন, নিহত তানভীরের শরীরে আঘাতের চিহ্ন ও পায়ে কাটা চিহ্ন আছে। তবে কি কারনে হত্যা করা হয়েছে এখনো জানা যায়নি। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সেলিমকে থানায় আনা হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App