×

এই জনপদ

ভেড়ামারায় মানববন্ধন

বন্ধ হওয়া ট্রেন চালুর দাবি

Icon

প্রকাশ: ২৬ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

ইসমাইল হোসেন বাবু, ভেড়ামারা (কুষ্টিয়া) থেকে : ভেড়ামারা রেলস্টেশন থেকে দক্ষিণাঞ্চলের আন্তঃনগর ট্রেন ঢাকাগামী সুন্দরবন ও বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন দুটির রুট বদল করা হয়েছে। আবার হঠাৎ করে জুন মাস থেকে আন্তঃনগর চিত্রা এক্সপ্রেস ঢাকাগামী ট্রেনের রুট বদল করার ঘোষণা দেয়া হয়। এতে ফুঁসে ওঠে ভেড়ামারা, দৌলতপুর ও মিরপুর উপজেলার লাখ লাখ মানুষ। ওই তিন ট্রেন পুনরায় যমুনা সেতু দিয়ে ঢাকায় যাওয়ার জন্য জোর দাবি জানিয়ে মানববন্ধন করেছে এলাকার হাজার হাজার নানা পেশার মানুষ।

গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় ভেড়ামারা নাগরিক কমিটির উদ্যোগে ৩ উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণ ঐক্যবদ্ধ হয়ে ভেড়ামারা রেলওয়ে স্টেশন চত্বরে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আবু হেনা মোস্তফা কামাল মুকুল, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলীম স্বপন, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হাজী আক্তারুজ্জামান মিঠু, পৌরসভার সাবেক মেয়র আলহাজ শামিমুল ইসলাম ছানা, ভেড়ামারা সরকারি মহিলা কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রাজা, প্রেস ক্লাবের সভাপতি আমিরুল ইসলাম মান্নান, কুষ্টিয়া জেলা নাগরিক কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. মোস্তানজীত লোটাস, ভেড়ামারা নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান আসাদ, সদস্য সচিব আসাদুজ্জামান আসাদ, অন্যতম সদস্য অসীত কুমার সিংহ রায় প্রমুখ।

আন্দোলনকারীরা বলেন, ঢাকাগামী সুন্দরবন ও বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন পদ্মা সেতু দিয়ে নয়, আগের মতো ট্রেনগুলো ভেড়ামারা হয়ে যমুনা সেতু দিয়ে ঢাকায় নেয়া হোক। তাহলে ভেড়ামারা, দৌলতপুর ও মিরপুর উপজেলার হাজার হাজার ট্রেনযাত্রী চরম ভোগান্তি থেকে রক্ষা পাবে। যদি তা না করা হয়, আগামীতে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে জনগণের দাবি আদায় করতে কঠোর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

উল্লেখ্য, সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত বছর ১ নভেম্বর সুন্দরবন এক্সপ্রেস ও ২ নভেম্বর বেনাপোল এক্সপ্রেস ট্রেন যমুনা সেতু দিয়ে না যেয়ে, পদ্মা সেতু হয়ে খুলনা টু ঢাকা চলাচল শুরু করে। ফলে ভেড়ামারা, দৌলতপুর ও মিরপুর উপজেলার শত শত ঢাকাগামী ব্যবসায়ী ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এবার চিত্রা এক্সপ্রেস ট্রেনেরও জুন মাসে রুট বদলের কথা শোনা যাচ্ছে। ফলে ওই উপজেলার মানুষ ট্রেনে ঢাকায় যেতে অনেক ভোগান্তিতে পড়বে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App