×

এই জনপদ

সুনামগঞ্জ

অর্থাভাবে মেধাবী সাইফুরের কলেজে ভর্তি অনিশ্চিত

Icon

প্রকাশ: ১৬ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

মো. সাজ্জাদ হোসেন শাহ্, সুনামগঞ্জ থেকে : সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার চরমহল্লা উচ্চবিদ্যালয় থেকে এবারের এসএসসি পরিক্ষায় অংশগ্রহণ করে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে জিপিএ-৫ পেয়েছে মাটি শ্রমিকের কাজ করে লেখাপড়া করা শিক্ষার্থী সাইফুর। এ জন্য তার স্কুলের শিক্ষকদের সহযোগিতাও উৎসাহ রয়েছে। কিন্তু ভালো ফলাফল করেও শিক্ষা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। মেধাবী শিক্ষার্থী সাইফুরের পরিবার ও বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, সাইফুরের বয়স যখন ছয় মাস তখন তার বাবা পরিবার ছেড়ে অন্যত্র চলে যান। এর তিন-চার বছর পরে তার মায়েরও অন্যত্র বিয়ে হয়। পড়াশোনার খরচ জোগাতে এলাকার হ্যান্ডট্রলিতে মাটি ভরার কাজ করে সাইফুর। সাইফুরকে অনেক কষ্টে মানুষ করেন তার নানী আফতেরা বেগম (৭০)। আফতেরা বেগম বলেন, তার বাবার চলে যাওয়া এবং মায়ের অন্যত্র বিয়ে হওয়ার পর আমি সাইফুরকে নিয়ে প্রথম কোনো কূলকিনারা করতে পারিনি। তারপরেও নাতিকে মানুষ করতে চেষ্টা করেছি। মা-বাবা ছাড়া এতিম শিশুকে মানুষ করা খুবই কঠিন। কিন্তু সাইফুরের নিজের চেষ্টা ছিল- তাই আজ সে ভালো করেছে। তিনি আরও বলেন, তারও নিজের কেউ নেই, কিছু জমি অন্যের কাছে বর্গা দিয়ে সেই জমি থেকে যা ধান পান তা দিয়ে কোনো রকমে চলেন তিনি। বাড়ির আঙ্গিনায়, পাট শাক, লাল শাক সবজি বিক্রি করে সাইফুরের লেখাপড়ার খরচ জোগান। ভালো ফল করায় জেলা শহরের কলেজে ভর্তি হতে চায় সাইফুর। কিন্তু শহরে এসে কোথায় থাকবে, কীভাবে লেখাপড়া চালাবে- এ নিয়ে চিন্তায় পড়েছে সাইফুর ও তার নানী। তবে তার ইচ্ছে, যে করেই হোক লেখাপড়া চালিয়ে যাবে। সাইফুর বলেন, আমার অনেক কষ্ট। মা-বাবাকে পাইনি। নানী বড় করেছেন। লেখাপড়া করে কি হতে চান- এ প্রশ্নে সাইফুরের কোনো জবাব ছিল না। শুধু এইটুকুই বলেন, আমি শুধু ভালো লেখাপড়া করে যেতে চাই, লেখাপড়া করে মানুষের মতো মানুষ হতে চাই।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App