×

এই জনপদ

বদরগঞ্জ

নামাজ পড়তে ডাকায় আছড়ে ছাত্রের দাঁত ভেঙে দিলেন শিক্ষক

Icon

প্রকাশ: ০৭ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

বদরগঞ্জ (রংপুর) প্রতিনিধি : উপজেলার বদরগঞ্জ পৌরসভায় নামাজ পড়তে ডাকায় মেরাজ উদ্দিন (৯) নামে এক শিশু ছাত্রের দাঁত ভেঙে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে শিক্ষকের বিরুদ্ধে। গত রবিবার পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের বদরগঞ্জ খানকায়ে ওয়ারেছিয়া হাফেজিয়া মাদ্রাসা লিল্লাহ বোডিংয়ে (এতিমখানা) এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত শিক্ষকের নাম হাফেজ মো. মেজবাহ উদ্দীন। আহত ছাত্রের নানি হামিদা খাতুন অভিযোগ করে বলেন, আমার নাতি আসরের নামাজের জন্য মেজবাহ হুজুরকে ডাকলে তিনি কোনো কারণ ছাড়াই বেদম মারপিট শুরু করেন। আঘাতের একপর্যায়ে মেরাজ মাটিতে পড়ে গেলে তার গলা ধরে মেজেতে আছড়াতে থাকেন তিনি। এ সময় মেরাজের মুখ দিয়ে রক্ত বের হয়ে গেলে আঘাত করা থামান তিনি। পরে মেরাজের মাথায় পানি ঢালা হয় এবং দেখা যায় তার একটি দাঁত ভেঙে গেছে। পরে তাকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে সেই দাঁতের গোড়া উপড়ে ফেলা হয়। মেরাজ পৌরসভার ছকিমুদ্দিনের ডাঙ্গার জাহাঙ্গীর আলমের ছেলে। আহত ছাত্র মেরাজের মা মমেনা বেগম বলেন, আমার এতিম বাচ্চাকে আমি এখানে হাফেজ হওয়ার জন্য দিয়েছি, কিন্তু এখন তার দাঁত ভেঙে দিয়ে খুঁত করল। আমি এর সুষ্ঠু বিচার চাই। অভিযুক্ত শিক্ষক হাফেজ মো. মেজবাহ উদ্দীনকে এ বিষয়ে জিজ্ঞাসা করলে প্রথমে তিনি অস্বীকার করলেও পরে ভুল স্বীকার করে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেন। এ বিষয়ে মাদ্রাসার সেক্রেটারি উপজেলা চেয়ারম্যান ফজলে রাব্বি সুইটের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি ব্যবস্থা নেয়ার কথা বলেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. নাজির হোসেন বলেন, এটা ফৌজদারি অপরাধ। থানায় অভিযোগ দিলে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App