×

এই জনপদ

আহত ১০

শ্রীপুরে দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ-ভাঙচুর

Icon

প্রকাশ: ০৩ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

শ্রীপুর (মাগুরা) প্রতিনিধি : উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে শ্রীপুর উপজেলার নবগ্রাম বাজারে গত বুধবার রাতে উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী শরীয়তউল্লাহ হোসেন মিয়া রাজন (মোটরসাইকেল প্রতীক) ও এম এম মোস্তাসিম বিল্লাহ সংগ্রামের (ঘোড়া প্রতীক) সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন। এ সময় মোটরসাইকেল প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয় ও দুই পক্ষের ১০-১২টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়। এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা সৃষ্টি হওয়ায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গত বুধবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার গয়েশপুর ইউনিয়নের নবগ্রাম বাজারে চেয়ারম্যান প্রার্থী রাজনের সমর্থকরা মোটরসাইকেল প্রতীকের নির্বাচনী অফিস উদ্বোধন করছিলেন। এ সময় অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী সংগ্রামের ঘোড়া প্রতীকের সমর্থকরা মোটরসাইকেল বহর নিয়ে মোটরসাইকেল প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয়ের সামনে এসে বিভিন্ন ধরনের উসকানিমূলক কথা বলতে থাকলে উভয় দুই পক্ষের মধ্যে বাগবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে সংগ্রামের ঘোড়া প্রতীকের সমর্থনে হালিম চেয়ারম্যানের লোকজন মোটরসাইকেল প্রতীকের কার্যালয়ে ব্যাপক ভাঙচুর করে। এ সংবাদ রাজনের লোকজনের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে পরে তারা সুসংগঠিত হয়ে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হালিম চেয়ারম্যানের লোকজনদের ঘিরে ফেলে। তখন উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে ফিরোজ মণ্ডল (৪০), মুক্তার হোসেন (৩৮)সহ অন্তত ১০ জন মারাত্মক আহত হন। আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় সুজন (২৭), আনোয়ার (২৪), ছিদ্দিক (৫৬), সঞ্চয় (৩২) নামে ৩ জনকে আটক করা হয়। শ্রীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ তাসমীম আলম বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে এবং সন্দেহজনকভাবে ঘটনাস্থল থেকে কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা থাকায় এবং বাড়ি-ঘর ভাঙচুর ও লুটপাটের আশঙ্কা থাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App