×

এই জনপদ

খরচ মেটাতে হাওরেই কম দামে ধান বেচছেন কৃষকরা

Icon

প্রকাশ: ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

মো. সাজ্জাদ হোসেন শাহ্, সুনামগঞ্জ থেকে : সুনামগঞ্জের হাওরে বোরোর বাম্পার ফলন হলেও ধান কাটা ও মাড়াইয়ের খরচ মেটাতে হাওরেই কম দামে ধান বিক্রি করছেন কৃষকরা। অন্যদিকে ঝড়, শিলাবৃষ্টি ও বজ্রপাত আতঙ্কে দ্রুত ধান কেটে গোলায় তুলতে প্রাণপণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন কৃষকরা। এতে করে হাওরে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের খরচ বেড়ে যাওয়ায় গোলায় না তুলে হাওরেই কম দামে ধান বিক্রি করছেন কৃষকরা। জানা যায়, এ বছর সরকার প্রতি মণ ধানের দাম ১ হাজার ২৮০ টাকা নির্ধারণ করলেও ধান কাটা ও মাড়াইয়ের খরচ মেটাতে সেই ধান হাওরেই ৮০০ টাকা মণ দামে বিক্রি করছেন বিভিন্ন উপজেলার কৃষকরা। ধর্মপাশা উপজেলার চন্দ্রসোনারতাল হাওরের কৃষক মনোয়ার হোসেন বলেন, সরকার আগামী ৭ মে থেকে সরকারি ধান ক্রয় কেন্দ্রগুলোতে ধান কেনা শুরুর ঘোষণা দিয়েছে। কিন্তু সরকার ঘোষিত সময় আসার আগেই ধান কাটা ও মাড়াইসহ নানা প্রয়োজনীয় খরচ মেটাতে কম দামে হাওর থেকেই ধান বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছেন কৃষকরা। তাহিরপুর উপজেলার শনির হাওরের কৃষক আবু শামা বলেন, কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন দিয়ে প্রতি বিঘা জমির ধান কাটা ও মাড়াইয়ে খরচ পড়ছে-আড়াই হাজার থেকে তিন হাজার টাকা পর্যন্ত। শ্রমিক দিয়ে সেই ধান কাটালে খরচ আরো বেড়ে যায়। আগে ধান কাটা হতো ধানের ভাগ দিয়ে, এখন শ্রমিকরা নগদ টাকা ছাড়া ধান কাটতে রাজি হয় না। এমনিতেই সারা বছর আত্মীয়স্বজনদের কাছ থেকে ধারদেনা ও মহাজনী ঋণ করে চাষাবাদ করেছি, এখন নতুন করে ধান কাটার জন্য টাকা পাব কোথায়। এজন্য কম দামে হাওর থেকেই ধান বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছি। জামালগঞ্জ উপজেলার ফেনারবাকের কৃষক তোফায়েল আহমদ বলেন, প্রতি বিঘা জমির ধান শ্রমিক দিয়ে কাটালে আড়াই-তিন এমনকি সাড়ে ৩ হাজার টাকাও খরচ হয়। আবার সেই ধান মাড়াই করতে গুনতে হচ্ছে আরো ৫-৬শত টাকা। ধান কাটার খরচ মেটাতে অনেকটা বাধ্য হয়েই কম দামে হাওরেই ধান বিক্রি করতে হচ্ছে। বিশ্বম্ভরপুর উপজেলার গন্ডামারা হাওরের কৃষক কামাল মিয়া বলেন, ধান কেনার জন্য সরকার যে সময় নির্ধারণ করেছে। সে সময় থেকে কিছুদিন আগে সরকার ধান কেনা শুরু করলে বাজারে ধানের দাম আরো বেড়ে যেত। এখন হাওর থেকে ভেজা ধান ৮০০ টাকা মণ দরে বিক্রি হচ্ছে। জানতে চাইলে জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক বিমল চন্দ্র সোম জানান, হাওরে ধান কাটার যথেষ্ঠ কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন রয়েছে। তাছাড়া হাওরে কোনো ধরনের শ্রমিক সংকট আছে বলে আমার কাছে এমন কোনো খবর নেই। যদি কোনো উপজেলায় শ্রমিক সংকট রয়েছে বলে আপনাদের কাছে খবর আসে, তাহলে তাদের বলবেন, তারা যেন আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে। আমরা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা নিব। তিনি আরো জানান, ধান কাটা ও মাড়াইয়ের খরচ মেটাতে কৃষকরা হাওরের যে ভেজা ধান ৮-৯শত টাকা মণদরে বিক্রি করছেন, সেই ধান শুকনো ধানের সঙ্গে হিসাব করলে ১২৫০ থেকে ১৩০০ টাকা দামই পড়ছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App