×

এই জনপদ

ছাতকে বেপরোয়া টমটমে নাকাল পৌরবাসী

Icon

প্রকাশ: ২২ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

ছাতকে বেপরোয়া টমটমে নাকাল পৌরবাসী
শংকর দত্ত, ছাতক (সুনামগঞ্জ) থেকে : শিল্পনগরী হিসেবে পরিচিত ছাতক শহরের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিটি সড়কে চলছে ব্যাটারিচালিত টমটম ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার দাপট। তবে এ ক্ষেত্রে শুধু টমটম মালিক নয় বরং ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে থাকা কর্তৃপক্ষের গাফিলতিকেই বেশি দায়ী করছেন পৌরবাসী। এসব টমটমের বেপরোয়া চলাচল ও যত্রতত্র পার্কিংয়ের কারণে পৌর শহরের সড়কগুলোতে তীব্র হচ্ছে যানজট। তবে এ সমস্যা সমাধানে কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। পৌরবাসীর পক্ষ থেকেও বিভিন্ন সময় দাবি জানানো হয়েছে। তবে তা আলোর মুখ দেখেনি। এমন পরিস্থিতিতে ক্ষোভ বাড়ছে শহরের বাসিন্দাদের মধ্যে। একই সঙ্গে যানজট নিরসনে ট্রাফিক পুলিশের পাশাপাশি পৌরসভা কর্তৃপক্ষের নজরদারি বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন পৌরবাসী। তারা বলছেন, টমটম ও অটোরিকশার সংখ্যা বাড়ায় সড়কে চাপ বাড়ছে। চোখের সামনে টমটম ও অটো বেড়ে চললেও প্রশাসন ও পৌর কর্তৃপক্ষ নির্বিকার। শহরবাসীর অভিযোগ, সড়ক ও শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে অনিয়ন্ত্রিতভাবে রাখা হয় টমটম ও অটোরিকশা। এতে তীব্র যানজটের সৃষ্টি করে। এর বিরুদ্ধে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেই সংশ্লিষ্টদের। জানা গেছে, পৌরসভার বিভিন্ন সড়কে প্রতিদিন তিন শতাধিক ব্যাটারিচালিত টমটম চলছে। নিয়মনীতি না মেনেই এসব চলছে। দক্ষতা না থাকায় তাদের গাড়ি চালানোর গতি বেপরোয়া। অধিকাংশ চালকের বয়স ১৮ বছরের নিচে। এসব টমটমের জন্য নির্দিষ্ট কোনো স্ট্যান্ড না থাকায় চালকরা ইচ্ছামতো যেখানে সেখানে গাড়ি রাখেন। সরজমিন পশ্চিমবাজার, মধ্যবাজার, বালিকা বিদ্যালয়, ট্রাফিক পয়েন্ট, পানহাটা, আখড়াসংলগ্ন এলাকা, সিমেন্ট কারখানা খেয়াঘাট, নোয়ারাই পাবলিক খেয়াঘাট, কালীবাড়ি ও তাহির প্লাজাসংলগ্ন ব্যস্ত এলাকাগুলো ঘুরে দেখা যায়, এখানকার একাধিক পয়েন্টে এলোমেলোভাবে রাখা হয়েছে টমটমগুলো। এতে সড়কে যান চলাচলের স্বাভাবিক অবস্থা বিঘিœত হচ্ছে। এদিকে এ সমস্যা সমাধানে সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত টমটম নিয়ন্ত্রণে শহরবাসীদের নিয়ে পৌর মেয়রের কয়েক দফা বৈঠকের কথা জানা গেছে। এছাড়া একাধিক মতবিনিময় সভাও করেছেন পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী। এসব সভায় বিশেষ কারণ ছাড়া শহরের ভেতরে টমটম ও অটোরিকশা চলাচল না করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। একই সঙ্গে নির্ধারিত স্থানে যাত্রী ওঠানামা ও গাড়ি রাখার ক্ষেত্রে করণীয় সম্পর্কে আলোচনা হয়। এর মধ্যে কিছুসংখ্যক ব্যাটারিচালিত গাড়ি পৌরসভা কর্তৃক অনুমোদন দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হলেও এখনো তা কার্যকর করা হয়নি। শহরের ব্যবসায়ী কামাল উদ্দিন জানান, টমটম সড়কে চলাচল নিয়ে প্রতিদিনই কোনো না কোনো স্থানে সমস্যা হচ্ছে। এসব নিয়ন্ত্রণে ট্রাফিক পুলিশের তৎপরতা ও লোকবল বাড়ানো জরুরি। ছাতক পৌরসভার ট্রাফিক পুলিশের দায়িত্বে থাকা সার্জেন্ট আল আমিন জানান, ট্রাফিক পুলিশের লোকবল স্বল্পতায় দায়িত্ব পালন করা অনেকটাই কষ্টকর হয়ে পড়েছে। এরপরও আইন অমান্যকারী ব্যাটারিচালিত টমটমগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান চলছে। পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী জানান, পৌরসভার পক্ষ থেকে টমটম গুলোকে ট্যাক্সের আওতায় এনেছি। তাছাড়া পৌরসভার পক্ষ থেকে সব প্রস্তুতি নেয়া শেষ। আগামী এক সপ্তাহের ভিতরে টমটম গুলো আর বাজারে ডুকতে পারবে না। তখন আর যানজট থাকবে না।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App