×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

অর্থ শিল্প বাণিজ্য

উদ্দেশ্য বিনিয়োগ ধরে রাখা

কোমল পানীয়র শুল্ক-কর কমাতে বিডার চিঠি

Icon

প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : বিনিয়োগ ধরে রাখতে পানীয় বা কোমল পানীয়র ওপর বিদ্যমান শুল্ককর কমাতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডকে (এনবিআর) চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ বিনিয়োগ কর্তৃপক্ষ (বিডা)। সম্প্রতি বিডার পরিচালক জসিম উদ্দিন সই করা একটি চিঠি এনবিআর চেয়ারম্যানকে দেয়া হয়। চিঠির কপি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়েও দেয়া হয়েছে বলেও জানা গেছে। এনবিআরকে চিঠি দেয়ার বিষয়টি জানান বিডার নিবন্ধন ও সহায়তা, বৈদেশিক শিল্প বিভাগের পরিচালক মু জসিম উদ্দিন খান। তবে এনবিআর গতকাল পর্যন্ত কোনা সাড়া দেয়নি।

চলতি বছর তুর্কি কোম্পানি কোকা-কোলা আইসেসেক (সিসিআই) ১৩০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের বিনিময়ে কোকা-কোলা বাংলাদেশ বেভারেজ লিমিটেডে (সিসিবিবি) অধিগ্রহণ করে। ভবিষ্যতে আরো ১৫০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগের পরিকল্পনা রয়েছে কোম্পানিটির।

সিসিআইয়ের বিনিয়োগের ব্যাপারটি উল্লেখ করে চিঠিতে বলা হয়, বর্তমান নি¤œমুখী ব্যবসায়িক অবস্থা বিবেচনায় ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে পূর্বে আরোপিত ন্যূনতম শুল্ক ৩ শতাংশ থেকে ১ শতাংশ না কমিয়ে বরং সম্পূরক শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশ বৃদ্ধি করা হয়েছে। প্রস্তাবিত হার বাস্তবায়িত হলে স্থানীয় পর্যায়ে এ নিয়ে মোট শুল্ককরের হার প্রায় ৫৩ শতাংশে পৌঁছাবে। অন্যান্য শিল্পের তুলনায় এটি সর্বোচ্চ হবে।

বাজেটে প্রস্তাবিত বর্ধিত করের হার এবং শুল্ক বিবেচনা করে সিসিআই আগের বিনিয়োগ পরিকল্পনা স্থগিত রেখেছে ও ভবিষ্যতে বিনিয়োগের সম্ভাবনা সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তাই চিঠিতে এ খাতের প্রতিষ্ঠানে ন্যূনতম কর ১ শতাংশ করা ও সম্পূরক শুল্ক ১৫ শতাংশ করার প্রস্তাব দেয়া হয়। এ প্রস্তাব পুনর্বিবেচনা করতে রাজস্ব বোর্ডকে অনুরোধ জানায় বিডা।

প্রস্তাবের পক্ষে চিঠিতে বলা হয়, ন্যূনতম কর এবং সম্পূরক শুল্ক যৌক্তিকহারে নির্ধারণের ওপর আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানটির প্রস্তাবিত ১৫০ মিলিয়ন ডলার বাংলাদেশে বিনিয়োগ নির্ভর করছে। বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণ ও অব্যাহত রাখার ব্যাপারটি বিবেচনা করে আবেদনকারী প্রতিষ্ঠানের প্রস্তাব অনুযায়ী ন্যূনতম কর এবং সম্পূরক শুল্ক নির্ধারণের বিষয়টি ইতিবাচকভাবে সুবিবেচনা করা প্রয়োজন।

ওই চিঠিতে বলা হয়, কোকা-কোলার পাশাপাশি স্প্রাইট, ফান্টা ও কিনলে উৎপাদন এবং বাজারজাত করছে। এ খাতে বিগত ২০২০-২১ অর্থবছরে এক হাজার ৭২ কোটি টাকা, ২০২১-২২ অর্থবছরে এক হাজার ১৪৪ কোটি টাকা, ২০২২-২৩ অর্থবছরে এক হাজার ৫৩৩ কোটি টাকা ও ২০২৩-২৪ অর্থবছরে প্রায় এক হাজার ২২৫ কোটি টাকা রাজস্ব দিয়েছে। চলতি অর্থবছরে পানীয় খাত থেকে রাজস্ব সংগ্রহের পরিমাণ কমেছে। যা আগের বছরের তুলনায় প্রায় ২০ দশমিক ১৯ শতাংশ কম।

২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে বিক্রির ওপর ৩ শতাংশ (পূর্বে ০.০৬ শতাংশ) ন্যূনতম কর হার প্রবর্তনের সঙ্গে বিদ্যমান মোট করের হারসহ এ খাতের জন্য স্থানীয় কর বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৮ দশমিক ২০ শতাংশ। ক্রমবর্ধমান কর বৃদ্ধির কারণে ভোক্তাপর্যায়ে পণ্যের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় পণ্যের চাহিদা উল্লেখযোগ্যভাবে কমে। এতে সরকারের রাজস্ব সংগ্রহকেও উল্লেখযোগ্যভাবে প্রভাবিত করেছে।

উল্লেখ্য, চলতি ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেটে কারবোনেটেড বেভারেজের (কোমল পানীয়) ওপর সম্পূরক শুল্ক ও কর বাড়ায় সরকার। কোমল পানীয় ও আইসক্রিম থেকে চলতি অর্থবছর বাড়তি ২৫০ কোটি টাকা ভ্যাট আদায়ের পরিকল্পনা রয়েছে এনবিআরের।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App