×

অর্থ শিল্প বাণিজ্য

ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে কমেছে শুকনা মরিচ আমদানি

Icon

প্রকাশ: ০১ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ ডেস্ক : সাতক্ষীরার ভোমরা স্থলবন্দর দিয়ে চলতি অর্থবছরের প্রথম ১০ মাসে (জুলাই-এপ্রিল) শুকনা মরিচ আমদানি গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় অর্ধেকেরও বেশি কমেছে। এ সময় গত অর্থবছরের তুলনায় প্রায় ৫৫ শতাংশ কম শুকনা মরিচ আমদানি করেছেন ব্যবসায়ীরা। আমদানিকারক ও ব্যবসায়ীরা বলছেন, ভারতে শুকনা মরিচের সরবরাহ কমে যাওয়ার পাশাপাশি দাম বাড়ায় আমদানি কমেছে। ভোমরা শুল্ক স্টেশনের রাজস্ব বিভাগ থেকে জানা গেছে, ২০২২-২৩ অর্থবছরের জুলাই-এপ্রিল পর্যন্ত এ বন্দর দিয়ে শুকনা মরিচ আমদানি হয়েছিল ৯৭ হাজার ৯৫৮ টন। চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছরের একই সময়ে তা কমে ৪৭ হাজার ১২০ টনে নেমেছে। তবে চলতি অর্থবছর আমদানি কমলেও গত অর্থবছরের তুলনায় শুকনা মরিচের আমদানি ব্যয় বেড়েছে। গত অর্থবছরের প্রথম ১০ মাসে এ বন্দর দিয়ে শুকনা মরিচের আমদানি মূল্য ছিল ১ হাজার ৭৩ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। চলতি অর্থবছর তা বেড়ে ১ হাজার ১৮৮ কোটি ১ লাখ টাকায় পৌঁছেছে। এ ব্যাপারে রপ্তানিকারকরা বলেন, ভারতে কয়েক মাস শুকনা মরিচের সরবরাহ কমে যাওয়ার পাশাপাশি দামও ব্যাপকভাবে বেড়েছে। এ কারণে গত অর্থবছরের এ সময়ের তুলনায় পণ্যটির আমদানি অন্তত ৫০-৫৫ শতাংশ কমেছে।

এদিকে আমদানি কমলেও সাতক্ষীরার মসলা বাজারগুলোয় শুকনা মরিচের দাম স্থিতিশীল। আড়তে পাইকারিতে শুকনা মরিচ বিক্রি হচ্ছে কেজিতে ৪০০-৪১০ টাকায়। এক মাসে আগেও এ পণ্যের দাম একই ছিল বলে জানিয়েছেন আড়ত মালিকরা।

সাতক্ষীরা জেলা কৃষি বিপণন কর্মকর্তা এস এম আব্দুল্লাহ জানান, শুকনা মরিচ আমদানি কমলেও তুলনামূলকভাবে দাম বাড়েনি বরং কমতির দিকে রয়েছে। দেড়-দুই মাস আগেও সাতক্ষীরার মসলা বাজারে শুকনা মরিচ বিক্রি হয়েছে ৪৪০-৪৫০ টাকা কেজি দরে। ভোমরা বন্দর দিয়ে সারা বছরই প্রচুর পরিমাণ শুকনা মরিচ আমদানি হয়। আমদানিকৃত এসব মরিচ ঢাকা, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে সরবরাহ করা হয়।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App