×

অর্থ শিল্প বাণিজ্য

নিম্নস্তরের সিগারেটের দাম বাড়ালে রাজস্ব বাড়বে

Icon

প্রকাশ: ২৭ এপ্রিল ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

কাগজ প্রতিবেদক : বিশ্বব্যাপী ধূমপায়ীদের সংখ্যা কমাতে সিগারেটের দাম বাড়ানো নতুন কোনো কৌশল নয়। বিভিন্ন দেশ এ পদ্ধতি অবলম্বন করে ধূমপায়ী কমাতে সফল হয়েছে। বাংলাদেশও উচ্চস্তরের সিগারেটের দাম বাড়িয়ে ভোক্তাদের নিরুৎসাহিত করতে সফল হয়েছে। কারণ প্রতি বছর তামাক ব্যবহারজনিত রোগে প্রায় ১ লাখ ৬১ হাজারের বেশি মারা যায়। তবে উচ্চ স্তরের সিগারেটের দাম বাড়ানোর ফলে ভোক্তাদের একটি বড় অংশ নি¤œস্তরের সিগারেটের দিকে ঝুঁকেছে। বর্তমানে ৮০ শতাংশই নি¤œস্তরের সিগারেটের ভোক্তা। কিন্ত বেশ কয়েক বছর ধরে বাংলাদেশে নি¤œস্তরের সিগারেটের দাম বেশ (গত ৫ অর্থবছরে বেড়েছে ১০ টাকা বা গড়ে ২ টাকা) মূল্যস্ফীতির সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বাড়েনি। পরিসংখ্যান বলছে, গত ২০২৩-২০২৪ অর্থবছরে এ স্তরে প্যাকেট মূল্য ৫ টাকা মূল্য বাড়ানোর পর প্রবৃদ্ধি বেড়েছে প্রায় ১৩ শতাংশ, যা প্রায় দুই হাজার ৫০০ কোটি টাকার সমান। নি¤œ, মধ্যম, উচ্চ ও অতি উচ্চস্তরের সিগারেটের দাম (প্রতি ১০ শলাকা) যদি ১০ টাকা বাড়ানো হয় তাহলে এ খাত থেকে প্রায় সাড়ে চার থেকে ৫ হাজার কোটি টাকার বেশি রাজস্ব আদায় সম্ভব। এ ব্যাপারে বিশেষজ্ঞরা বলেন- নি¤œস্তরের সিগারেটের দাম ১০ থেকে ১৫ টাকা বাড়ানো গেলে নি¤œ আয়ের ধূমপায়ীদের এর প্রভাব পড়তে বাধ্য। তাছাড়া এতে করে ধূমপায়ীর সংখ্যা যেমন কমবে তেমনি রাজস্ব আয়ও বাড়বে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App