×

সারাদেশ

নন্দীগ্রাম

টেন্ডার ছাড়া জেলা পরিষদ বাংলোর গাছ বিক্রি

Icon

প্রকাশ: ১০ জুলাই ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি : নন্দীগ্রামে টেন্ডার ছাড়াই রাতের অন্ধকারে জেলা পরিষদের ডাকবাংলোর সরকারি গাছ কাটার ঘটনা ঘটেছে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপজেলা প্রশাসনের উপস্থিতি টেরপেয়ে পালিয়েছে গাছ কাটার কাজে আসা অন্তত ২০ জন শ্রমিক। জেলা পরিষদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মুকুল মিঞার নির্দেশে ইউক্যালিপটাস, পাইকরসহ দুই লাখ টাকা দামের বেশ কয়েকটি গাছ কাটা হচ্ছিল বল অভিযোগ।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. হুমায়ুন কবির জানান, রণবাঘা এলাকায় জেলা পরিষদের ডাক বাংলোর জায়গার সরকারি গাছ বিক্রির টেন্ডার হয়েছে কি না সঠিক কোনো তথ্য নেই। জেলা পরিষদ সদস্য গাছগুলো কেটে নিচ্ছেন খবর পেয়ে সেখানে প্রশাসনের লোকজন পাঠানো হয়। শ্রমিকরা কাটার কাজ বন্ধ করে গাছগুলো ডাক বাংলোর ভেতরে রেখে পালিয়ে গেছে। যারা গাছ কেটেছে তাদের কাছে কাগজপত্র চেয়েছি। এসিল্যান্ডের কাছে কাগজপত্র দেয়ার কথা। এখন পর্যন্ত তারা কাগজপত্র দাখিল করেনি।

স্থানীয় সূত্র জানায়, রণবাঘা বাজারের পাশে জেলা পরিষদের ডাকবাংলোর জায়গায় থাকা বেশ কয়েকটি গাছ এক ব্যবসায়ীর কাছে বিক্রি করে টাকা নিয়েছেন জেলা পরিষদের সদস্য মুকুল মিঞা। গত শনিবার রাত থেকে গাছগুলো কাটা হচ্ছিল। গত রবিবার সকালে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে তারা পালিয়েছে। বগুড়া জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুকুল মিঞা বলেন, আমি সেখানে যাইনি। গাছ বিক্রি করে টাকা নেয়ার বিষয়টি মিথ্যা। আমি জানি ভুলক্রমে কেউ দুই-চারটা গাছ কেটেছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এবং উপজেলা চেয়ারম্যান বিষয়টি দেখছেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App