×

সারাদেশ

গ্রাম প্রতিরক্ষা বাঁধে ভাঙন আতঙ্কে কয়েকশ পরিবার

Icon

প্রকাশ: ২৯ জুন ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

গ্রাম প্রতিরক্ষা বাঁধে ভাঙন  আতঙ্কে কয়েকশ পরিবার

হারুনূর রশিদ, রায়পুরা (নরসিংদী) থেকে : রায়পুরায় মেঘনা বেষ্টিত চরমধুয়ায় গ্রাম প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্মাণের এক বছরের মধ্যে আবারো ভাঙন দেখা দিয়েছে। দেড় ঘণ্টায় ৭০ মিটার নির্মাণাধীন বাঁধ বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙন আতঙ্কে রয়েছে স্থানীয়রা।

উপজেলার দুর্গম চরাঞ্চলের চরমধুয়া ইউনিয়নে গ্রাম প্রতিরক্ষা বাঁধে গত বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে ভাঙন শুরু হয়ে সাড়ে ৯টা পর্যন্ত চলে। খবর পেয়ে ওই দিন বিকালে বাঁধ এলাকা পরিদর্শনে আসেন সেনাবাহিনীর ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন ব্রিগেড ও নরসিংদী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) কর্মকর্তারা। এ সময় তারা বাঁধের ক্ষতিগ্রস্ত অংশ মেরামতের নিদের্শ দেন। স্থানীয়রা জানান, মেঘনায় বর্ষায় পানির প্রবল স্রোতে এক বছর আগে নির্মিত বাঁধের ৭০ মিটার অংশ বিলীন হয়ে গেছে। এতে হুমকিতে রয়েছে বাঁধসংলগ্ন সরকারি বিভিন্ন স্থাপনা, বসতঘর ফসলি জমিসহ বেশ কয়েকশ পরিবার।

স্থানীয় বাসিন্দা কালিপদ দাস বলেন, বাঁধ নির্মাণের এক বছর যেতে না যেতেই আবারো ভাঙন শুরু হয়েছে। বর্ষায় পানি বৃদ্ধির প্রবল স্রোতে এক বছর আগে শেষ হওয়া বাঁধের তিন বিঘা অংশ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। এতে হুমকিতে রয়েছি।

নরসিংদী পাউবোর সহকারি প্রকৌশলী শাহাবুদ্দিন আহমেদ জানান, বাঁধটি নির্মাণ করেছে সেনাবাহিনীর ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন ব্রিগেড। এক বছরের মধ্যে বাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হলে তারাই মেরামত করবে। নির্মাণাধীন ৭০ মিটারের মতো বাঁধ নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। খবর পেয়ে নরসিংদী পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সেনাবাহিনীর ২৪ ইঞ্জিনিয়ার কন্সট্রাকশন ব্রিগেড কর্মকর্তারা ক্ষতিগ্রস্ত বাঁধ পরিদর্শন শেষে মেরামতের নির্দেশনা দেন।

চর মধুয়া ইউপি চেয়ারম্যান আহসান শিকদার বলেন, গত বৃহস্পতিবার সকালে স্রোতে জিওব্যাগ, সিসিব্লকসহ বাঁধের তিন বিঘার মতো অংশ ভেঙে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যায়। এ সময় এলাকাবাসী ভীতসন্তস্ত হয়ে পড়েন। মূলত পানি বৃদ্ধি ও প্রবল স্রোতের কারণে নিচের বালু সরে যাওয়ায় এমন ভাঙন দেখা দিয়েছে। ভাঙনের কারণে চরমধুয়া এলাকার বসতভিটা, ফসলি জমিসহ কয়েক শত পরিবার হুমকির মধ্যে পড়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App