×

সারাদেশ

মিরসরাইয়ে যুবলীগ নেতা হত্যা

৭ বছর পর ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

Icon

প্রকাশ: ২৮ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : মিরসরাই উপজেলার ১৫ নম্বর ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফজলুল করিম হত্যা মামলার প্রধান আসামি শাকিল হোসেনকে (২৬) সাত বছর পর গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭। গত শনিবার সন্ধ্যায় ফেনী জেলার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের স্টারলাইন ফিলিং স্টেশনের সামনে থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। শাকিল চট্টগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলার ১২ নম্বর খৈয়াছড়া ইউনিয়নের মসজিদিয়া চরারকুল এলাকার কামাল হোসেনের ছেলে। জানা গেছে, ২০১৭ সালের ৫ সেপ্টেম্বর ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের ফরফরিয়া গ্রামের শফিউল আলমের ছেলে ফজলুল করিমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। ফজলুল করিম ১৫ নম্বর ওয়াহেদপুর ইউনিয়নের যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক সম্পাদকের দায়িত্বে ছিলেন। ২০১৭ সালের সালের ২৩ জানুয়ারি ওয়াহেদপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক নুরুল আমিন মুহুরী হত্যাকাণ্ডের জেরে ফজলুল করিমকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় ফজলুল করিমের বাবা বাদী হয়ে মিরসরাই থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। এরপর থেকে গ্রেপ্তার এড়াতে শাকিল আত্মগোপনে চলে যায়। র‌্যাব-৭-এর সিনিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. শরীফ উল আলম জানান, গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে যে, ফজলুল করিম হত্যা মামলার প্রধান আসামি মো. শাকিল হোসেন ফেনী জেলার ফেনী মডেল থানাধীন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের স্টার লাইন ফিলিং স্টেশনের সামনে অবস্থান করছে। এ তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দল গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। গ্রেপ্তারকৃত আসামিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করে যে, সে এবং তার অন্যান্য সহযোগীরা রাজনৈতিকভাবে প্রভাব বিস্তার ও পূর্ব বিরোধের জেরে ভিকটিম ফজলুল করিমকে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করে। তিনি আরো জানান, গ্রেপ্তারকৃত আসামির বিরুদ্ধে মিরসরাই থানায় একটি হত্যা ও একটি হত্যার চেষ্টা এবং জোরারগঞ্জ থানায় একটি হত্যা চেষ্টার মামলাসহ ৩টি মামলা রয়েছে। মো. শাকিল হোসেনকে গত রবিবার মিরসরাই থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App