×
Icon এইমাত্র
কমপ্লিট শাটডাউন কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে কোটা আন্দোলনকারীরা বাংলাদেশ টেলিভিশনের মূল ভবনে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। বিটিভির সম্প্রচার বন্ধ। কোটা সংস্কার আন্দোলনে সারা দেশে এখন পর্যন্ত ১৯ জন নিহত কোটা ইস্যুতে আপিল বিভাগে শুনানি রবিবার: চেম্বার আদালতের আদেশ ছাত্রলীগের ওয়েবসাইট হ্যাক ‘লাশ-রক্ত মাড়িয়ে’ সংলাপে বসতে রাজি নন আন্দোলনকারীরা

সারাদেশ

পটিয়া

দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীতে বিভক্ত তৃণমূল আ.লীগ

Icon

প্রকাশ: ২৫ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

এস এম এ কে জাহাঙ্গীর, পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি : আগামী ২৯ মে তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া পটিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগসহ স্থানীয় নেতাকর্মীরা দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে ভোটের মাঠে তৎপর রয়েছেন। বিভিন্ন এলাকায় নির্বাচনী সভা-সমাবেশে বক্তব্যে উত্তপ্ত করছেন ভোটের মাঠ। এ নিয়ে দ্ব›েদ্বর আশঙ্কা বাড়ছে। চেয়ারম্যান প্রার্থী হারুনুর রশিদ ও দিদারুল আলমের পক্ষে তৃণমূলে নেতাকর্মীরা বিভক্ত হয়ে কাজ করছেন।

জানা গেছে, পটিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের ৫ প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করলেও প্রত্যাহার শেষে বর্তমানে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ ও নগর যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক মো. দিদারুল আলম প্রতিদ্ব›িদ্বতায় রয়েছেন।

এদিকে এ দুই প্রার্থীকে ঘিরে সাবেক সংসদ সদস্য হুইপ সামশুল হক চৌধুরী ও বর্তমান সংসদ সদস্য মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরীর মধ্যে একজন হারুনুর রশিদকে, অন্যজন দিদারুল আলমকে সমর্থন দিচ্ছেন বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে জিতিয়ে আনতে ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে নানামুখী তৎপরতা। এর মধ্যে সামশুল হক চৌধুরী চেয়ারম্যান পদে হারুনুর রশিদকে (আনারস) ও মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী দিদারুল আলমকে (দোয়াত কলম) সমর্থন দিচ্ছেন বলে প্রকাশ পেয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর মেয়র হারুনুর রশিদ তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা করছেন। অন্যদিকে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী নগর যুবলীগের যুগ্ম সম্পাদক দিদারুল আলমও বিভিন্ন ইউনিয়নে নেতাকর্মীদের নিয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।

দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী দিদারুল আলম বলেন, ইতোমধ্যে আমার পক্ষে ১৭ ইউনিয়ন ও পৌরসভায় গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগসহ সর্বস্তরের জনগণ আমার সঙ্গে রয়েছে। আমি আশাবাদী নির্বাচনে বিপুল ভোটে জয়ী হব।

আনারস প্রতীকের প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ বলেন, দলের বেশির ভাগ নেতাকর্মী আমার পক্ষে আছেন। তবে কিছু নেতা তৃণমূল নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করছে। আমি তাদের এ থেকে সরে আসার অনুরোধ জানাচ্ছি।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App