×

সারাদেশ

চান্দিনা

শিশু সুবর্ণা হত্যা মামলায় যুবকের যাবজ্জীবন

Icon

প্রকাশ: ২৩ মে ২০২৪, ১২:০০ এএম

প্রিন্ট সংস্করণ

চান্দিনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি : কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলা সদরের বেলাশর গ্রামের শিশু সুবর্ণা মিমকে (৬) শ্বাসরোধে হত্যার পর লাশ গুম করার অপরাধে ওমর ফারুক (১৯) নামের এক যুবককে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন কুমিল্লার আদালত। গত মঙ্গলবার কুমিল্লার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-২ এর বিচারক (জেলা জজ) মো. জাহিদুল কবির এই রায় দেন। দণ্ডিত আসামি ওমর চান্দিনা উপজেলার বেলাশ্বর গ্রামের মোস্তফা কামালের ছেলে।

মামলার বিবরণ, আইনজীবী, স্থানীয় সূত্রে জানা যায়- চান্দিনা পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাদত আলী মেম্বারের ছেলে মো. কোরবান আলী ও খাদিজা আক্তার শিমু দম্পতির কন্যা সুবর্ণা মীম। মা-বাবার বিবাহ বিচ্ছেদ হলে শিশুটি তার বাবার সঙ্গেই থেকে যায়। ২০১৭ সালের ৬ ডিসেম্বর কোরবান মোবাইল করে শিশুর মাকে জানায় সুবর্ণার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। এরপর সন্ধ্যায় তিনি জানান কে বা কারা সুবর্ণার মুক্তিপণ হিসেবে দশ লাখ টাকা দাবি করছে। পর দিন সকালে সিরামিক ফ্যাক্টরিসংলগ্ন থানগাঁও খালের পশ্চিম পাশে সুবর্ণার লাশ পাওয়া যায়।

ওই ঘটনায় শিশুর মা খাদিজা ৭ ডিসেম্বর বাদী হয়ে চান্দিনা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা সাবইন্সপেক্টর (নিরস্ত্র) ডালিম কুমার মজুমদার তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবহার করে ৮ ডিসেম্বর উপজেলার বেলাশ্বর গ্রামের মোস্তফা কামালের ছেলে মো. ওমর ফারুককে গ্রেপ্তার করেন। আসামি সুবর্ণা হত্যাকাণ্ডে জড়িত বলে আদালতে জবানবন্দি দেয়। জবানবন্দি পর্যালোচনা করে আসামি ওমরের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ৫০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড এবং ২০১ ধারায় ৫ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন আদালত। এছাড়াও নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে- আদালত ১০ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও ২৫ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দেন। রায় ঘোষণাকালে আসামি মো. ওমর ফারুক আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

সাবস্ক্রাইব ও অনুসরণ করুন

সম্পাদক : শ্যামল দত্ত

প্রকাশক : সাবের হোসেন চৌধুরী

অনুসরণ করুন

BK Family App